ফের রণক্ষেত্র আল আকসা, গাজায় নিহত ৯

ছবি : রয়টার্স

ছবি : রয়টার্স

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের দখলদারিত্ব ও আল আকসা মসজিদ থেকে পুলিশ প্রত্যাহারকে কেন্দ্র করে ফের রণক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে আল আকসা ও গাজার ভূমধ্যসাগরীয় তীরবর্তী এলাকা। সোমবার (১০ মে) ইসরায়েলের পুলিশ ও সেনাবাহিনীর সঙ্গে সংঘাতে ৯ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন আরো তিন শতাধিক।

ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সোমবার রাতে ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর বিমান হামলায় গাজার উত্তরাংশে ৯ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন, নিহতের মধ্যে তিনজন শিশুও আছে।

এদিকে, একই দিন আল-আকসা মসজিদ চত্বরে ব্যাপক বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা জানিয়েছে, বিস্ফোরণের ফলে সৃষ্ট অগ্নিশিখা এত বড় ও উজ্জল ছিল যে, পূর্ব জেরুজালেমের শহরের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে দেখা গেছে সেই আগুনের শিখা।

বিস্ফোরণের ফলে ইসরায়েল পুলিশ বাহিনীর সদস্যসহ সে সময় মসজিদ চত্বর ও তার আশাপাশের এলাকার অন্তত ৩৩১ জন আহত হয়েছেন।

গত বেশকিছুদিন ধরেই গাজা এলাকায় ইসরায়েলের দখলদারিত্বকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভ চলছিল জেরুজালেমে। রোববার (৯ মে) লাইলাতুল কদরের রাতে আল আকসায় নামাজ আদায় শেষে উপস্থিত ফিলিস্তিনি মুসল্লিরা বিক্ষোভ শুরু করলে তা দমন করতে তৎপর হয় ইসরায়েলের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

ওই দিনের সংঘাতে অন্তত ৯০ জন ফিলিস্তিনি আহত হয়েছিলেন। ওইদিনের সংঘর্ষের পর থেকে আল আকসা মসজিদ ও এর সংলগ্ন এলাকা ঘিরে রেখেছিল ইসরায়েলি পুলিশ।

এর জেরে ফিলিস্তিনের অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল হামাস হুমকি দেয় ইসরায়েলের ক্ষমতাসীন সরকারকে। দলের পক্ষ থেকে বলা হয়, ১০ মে সন্ধ্যা ৬ টার মধ্যে মসজিদ চত্বর থেকে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের প্রত্যাহার না করা হলে তার পরিণতির জন্য ইসরায়েল সরকার দায়ী থাকবে।

কিন্তু ইসরায়েলের সরকার এই হুমকিকে আমল না দেওয়ায় ১০ মে সন্ধ্যার পর গাজা থেকে ইসরায়েলের বিভিন্ন স্থাপনা লক্ষ্য করে রকেট হামলা শুরু করে হামাস। হামাস এই হামলা শুরু করার কিছুক্ষণ পরই গাজায় বিমান হামলা শুরু করে ইসরায়েলের সেনাবাহিনী।


এদিকে হামাস রকেট হামলা শুরু করার কিছুক্ষণ পরই আল আকসা মসজিদ চত্বরে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। তবে কীভাবে এই বিস্ফোরণ ঘটল বা এর জন্য কারা দায়ী তা এখনো জানা যায়নি।

এদিকে, ইসরায়েলের আইনশৃঙ্খলা ও সেনা সদস্যদের সঙ্গে ফিলিস্তিনিদের গত কয়েক দিন ধরে চলা এই সংঘর্ষে গভীর উদ্বেগ জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের বাইডেন প্রশাসন।

হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি সোমবার সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা ইসরায়েল ও তার সীমান্তবর্তী এলাকার পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছি। গত কয়েক দিন ধরে ওই এলাকায় যে ভয়াবহ সংঘাত হচ্ছে, তাতে যুক্তরাষ্ট্র ও বাইডেন প্রশাসন খুবই উদ্বিগ্ন।’


মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh