নাইজেরিয়ায় বন্দুকধারীদের গুলিতে নিহত ৪০

নাইজেরিয়ার উত্তর-মধ্যাঞ্চলে বন্দুকধারীদের হামলায় প্রায় ৪০ জন শ্রমিক মারা গিয়েছেন। যারা সকলেই খনিতে কাজ করতেন বলে সূত্রের খবর। আরও জানা গিয়েছে, ঘটনার দিন দুষ্কৃতীরা আচমকাই মোটরবাইকে করে এসে হামলা চালায়।

স্থানীয় প্রশাসন সূত্র অনুযায়ী, তারা বাইকে করে এসে গ্রামের লোকজনের ওপর এলোপাথাড়ি গুলি বর্ষণ করে এবং গ্রামবাসীদের বাড়ি-ঘরে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। যাতে নিহত হয়েছেন প্রায় ৪০ জন গ্রামবাসী।

ঘটনাটি ঘটেছে, গত সোমবার (২০ মে) রাতে নাইজেরিয়ার প্লাতু রাজ্যের ওয়াসে জেলায়। এই হামলার কারণ হিসেবে জানা গিয়েছে, ওই অঞ্চলে দীর্ঘদিন ধরেই সম্পদ নিয়ে বিরোধ এবং আন্তঃসাম্প্রদায়িক সংঘর্ষ চলছিল। যার ফলে ওই অঞ্চলে রীতিমতো চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। আর পুলিশ প্রশাসনের কথায়, হামলাকারীরা শুধুমাত্র জুরাক সম্প্রদায়ের ওপরেই হামলা চালিয়েছে। তাঁদের উপর এলোপাথাড়ি গুলি চালিয়েছে এবং তাঁদের বাড়ি-ঘর পুড়িয়ে দিয়েছে। 

রাজ্যের তথ্য কমিশনার মুসা ইব্রাহিম আশোমস ফোনের মাধ্যমে এএফপিকে জানিয়েছেন, সশস্ত্র ব্যক্তিরা জুরাক সম্প্রদায়ের ওপর হামলা চালিয়েছে। এবং এই মর্মান্তিক ঘটনায় তাঁদের মধ্যে প্রায় ৪০ জন নিহত হয়েছেন। কিন্তু জুরাক সম্প্রদায়ের যুব নেতা শাফি সাম্বো জানিয়েছেন, মোট নিহতের সংখ্যা ৪২ জন।

উল্লেখ্য, জুরাক একটি জনপ্রিয় খনি সম্প্রদায়। আর নাইজেরিয়ার প্লাতু রাজ্যের ওয়াসে জেলাটি একেবারে জিঙ্ক এবং সীসায় সমৃদ্ধ প্লাতু রাজ্য বিশেষত টিনের খনি শিল্পের জন্যে বিখ্যাত। তবে নাইজেরিয়ার সম্পত্তির বিবাদের বিষয়টি নতুন নয়, নাইজেরিয়ার বিভিন্ন এলাকায় প্রায়শই যাযাবর পশুপালক এবং মেষপালকদের মধ্যে বিরোধের ঘটনা ঘটে থাকে। এবং এমন মর্মান্তিক সহিংসতায় বলিও হয় প্রচুর নিরীহ মানুষ।

মুলত জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে চারণভূমিতে জলের প্রবেশাধিকার এবং ধাতব মজুত নিয়ে দুপক্ষের বিরোধ হয়। নাইজেরিয়ার উত্তর-পশ্চিম এবং উত্তর-মধ্য অঞ্চলে ভারী সশস্ত্র অপরাধী চক্রগুলি গোপনে থাকে। তারা মুলত অপহরণ এবং লুটপাট চালিয়েই জীবনধারণ করেন।

সূত্র: এএফপি

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2024 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //