ব্রিটিশমন্ত্রী টিউলিপ ও রুশনারা যেসব দায়িত্ব পালন করবেন

যুক্তরাজ্যের নতুন সরকারের 'সিটি মিনিস্টার' নির্বাচিত হয়েছেন বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপ সিদ্দিক। আর হাউজিং বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পলিসিগত ডেভেলপমেন্টের মন্ত্রী হয়েছেন রুশনারা আলী। গত মঙ্গলবার (৯ জুলাই) ব্রিটিশ সরকারের এক বিবৃতিতে এই নিয়োগের কথা জানানো হয়েছে।

লেবার পার্টি গত সপ্তাহে যুক্তরাজ্যের নির্বাচনে বড় জয় পায়। এর ফলে দেশটির প্রধানমন্ত্রী হিসেবে কনজারভেটিভ দলের ঋষি সুনাকের স্থলাভিষিক্ত হন কিয়ার স্টারমার। ১৪ বছর পর স্টারমারের মাধ্যমে যুক্তরাজ্যের ক্ষমতায় এসেছে লেবার পার্টি। শুরুর দিকে স্টারমারকে লেবার নেতা হিসেবে যে কয়জন মনোনীত করেছিলেন, তাদের মধ্যে ছিলেন এমপি টিউলিপ সিদ্দিকও।

ব্রিটিশ গণমাধ্যমের বরাতে জানাগেছে, টিউলিপ সিদ্দিক সিটি মিনিস্টার পদে সাবেক এইচএসবিসি ব্যাংকার বিম আফোলামির স্থলাভিষিক্ত হবেন। এ পদে মন্ত্রীত্বের মাধ্যমে আর্থিক পরিষেবা খাতের তত্ত্বাবধানের দায়িত্ব পাবেন টিউলিপ।

৪১ বছর বয়সি টিউলিপ সিদ্দিক ২০২১ সাল থেকে লন্ডনের 'দ্য সিটি' নামে পরিচিত আর্থিক পরিষেবা শিল্পের জন্য নীতিমালা তৈরিতে লেবারের উদ্যোগের নেতৃত্ব দিয়েছেন।

এবারের নির্বাচনে হ্যাম্পস্টেড ও হাইগেট থেকে টানা চতুর্থবারের মতো নির্বাচনে বিজয়ী হয়েছেন টিউলিপ। ২০২৩ সালে হ্যাম্পস্টেড ও কিলবার্ন নির্বাচনি এলাকার স্থলে হ্যাম্পস্টেড ও হাইগেট পুনঃপ্রতিষ্ঠা করা হয়। ২০১৫ সাল থেকেই এ আসন ধরে রেখেছেন লেবারের টিউলিপ সিদ্দিক।

সিটি মিনিস্টার হিসেবে যেসব দায়িত্ব পালন করবেন টিউলিপ:

সিটি মিনিস্টার যুক্তরাজ্য সরকারের মধ্য-স্তরের এইচএম (হিজ ম্যাজেস্টি) ট্রেজারিতে মন্ত্রী পদ, যেখানে 'সিটি মিনিস্টার' ব্রিটিশ আর্থিক পরিষেবা খাতের দায়িত্বে থাকেন। ব্রিটিশ আর্থিক পরিষেবা খাত সাধারণত 'সিটি' নামে পরিচিত। সিটি মিনিস্টার এর কাজ হলো, ব্রিটিশ সরকারের জাতীয় অর্থব্যবস্থা কার্যকর করা এবং অর্থনৈতিক নীতিমালার বিকাশ ঘটানো।

ব্রিটিশ 'সিটি মিনিস্টার' পদটি আর্থিক পরিষেবা খাতের তত্ত্বাবধানের জন্য তৈরি করা হয়েছিল। ব্যাংকিং, বীমা এবং আর্থিক বাজারকে প্রভাবিত করে এমন নীতিমালা নিয়ে কাজ করাই 'সিটি মিনিস্টার' এর দায়িত্ব। সিটি মিনিস্টার আর্থিক শিল্পকে সমর্থন করতে এবং ভোক্তাদের সুরক্ষার জন্য ট্রেজারি ও অন্যান্য সরকারি বিভাগের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করেন।

এ পদে দায়িত্ব পাওয়া টিউলিপ সিদ্দিক এখন থেকে যুক্তরাজ্যের অর্থ মন্ত্রণালয়ের অধীনে আর্থিক সেবা খাতের নিয়ন্ত্রকের ভূমিকা পালন করবেন। যুক্তরাজ্যের আর্থিক সেবা খাতের বিভিন্ন নীতিমালা নির্ধারণ ও প্রণয়নে নেতৃত্ব দেবেন তিনি। অর্থনৈতিক খাতের প্রযুক্তি ও ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ন্ত্রণ এবং ঋণ ব্যবস্থাপনা–সংক্রান্ত নীতিনির্ধারণের দায়িত্ব পালন করতে হবে তাকে।

এদিকে পাঁচবারের এমপি রুশনারা আলী ২০১০ সালে প্রথম ব্রিটিশ বাংলাদেশি হিসেবে এমপি হয়ে ইতিহাস রচনা করেন। তবে এবারই তিনি ব্রিটিশ সরকারের মন্ত্রী হিসেবে কাজ করার সুযোগ পেয়েছেন।  তিনি গৃহায়ণ, কমিউনিটি ও স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের পার্লামেন্টারি আন্ডার সেক্রেটারি হয়েছেন। এই সরকারে দ্বিতীয় বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত হিসেবে রুশনারার নাম যুক্ত হলো।

এর আগে লেবার পার্টির এমপি রুশনারা বিরোধী দলে থাকলেও সরকারের নানা গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে ছিলেন। 

সদ্য শেষ হওয়া ব্রিটেনের সাধারণ নির্বাচনে লন্ডনের বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড স্টেপনি আসন থেকে লেবার পার্টির হয়ে টানা পঞ্চমবারের মতো এমপি নির্বাচিত হন তিনি। দখলে নেন ১৫ হাজার ৮৯৬টি ভোট। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আরেক বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত স্বতন্ত্র প্রার্থী আজমাল মাশরুরকে হারান প্রায় ১৭শ’ ভোটের ব্যবধানে।

এর আগে দেশটির বিরোধীদলীয় মন্ত্রিসভায় ছায়া মন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেন তিনি। লেবার সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই মন্ত্রী হিসেবে আলোচনায় ছিল রুশনারা আলীর নাম।

যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টের প্রথম বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এমপি রুশনারা। লন্ডনের বাংলাদেশি অধ্যুষিত টাওয়ার হ্যামলেটসের ওই আসনে ২০১০ সাল থেকে টানা এমপি নির্বাচিত হয়ে আসছেন তিনি। রুশনারার জন্ম সিলেটে। রুশনারা বয়স যখন সাত বছর, তখন যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমায় তাঁর পরিবার। তিনি অক্সফোর্ডের সেন্ট জনস কলেজ থেকে দর্শন, রাজনীতি ও অর্থনীতিতে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2024 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //