বাংলাদেশিদের জন্য খুলছে গ্রিসের দরজা, আগামী মাসে এমওইউ সই

বাংলাদেশি শ্রমিকেরা শিগগির বৈধ উপায়ে গ্রিসে যেতে পারবেন বলে আশা করা হচ্ছে। আগামী মাসে এ বিষয়ে দুই দেশ একটি সমঝোতা স্মারকে (এমওইউ) সই করতে পারে।

২০২০ সালের নভেম্বরে গ্রিসের রাজধানী এথেন্সে একটি ‘আগ্রহপত্র’ সই করে দুই দেশ। যার উদ্দেশ্য ছিল কর্মীদের নিরাপদ ও নিয়মিত অভিবাসনের জন্য সহযোগিতা বৃদ্ধি।

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ইমরান আহমদ সম্প্রতি এ বিষয়ে বলেছেন, আগ্রহপত্রের ঘোষণাটি ছিল সমঝোতা স্মারকের প্রথম উদ্যোগ। আমরা আশা করছি ফেব্রুয়ারির শেষ নাগাদ আমরা একটি সমঝোতা স্মারক সই করতে পারব। একবার সমঝোতা স্মারক হয়ে গেলে, পরবর্তী ধাপে একটি স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং সিস্টেম করা হবে।

সমঝোতা স্মারক বাংলাদেশি শ্রমিকদের পাশাপাশি দক্ষ পেশাদার কর্মীদের গ্রিসে অভিবাসন নিশ্চিত করবে।

এথেন্সে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আশুদ আহমেদ বলেছেন, এই সমঝোতা স্মারকের অন্যতম উদ্দেশ্য হবে অবৈধ অভিবাসন ও মানবপাচার রোধ। এমওইউ সই হলে আরও বেশি বাংলাদেশি শ্রমিক এই খাতে কাজ করতে পারবেন। গ্রিসে বর্তমানে প্রচুর সংখ্যক বিদেশি কর্মী প্রয়োজন।

বাংলাদেশিরা প্রায়ই ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে নৌকায় গ্রিস ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশে পৌঁছানোর জন্য সাগরে মৃত্যুঝুঁকি পর্যন্ত নিয়ে থাকেন। অনেককে বন্দিশালায় আটক থাকতে হয়।

এথেন্সে বাংলাদেশ দূতাবাসের কর্মকর্তাদের মতে, গ্রিসে আনুমানিক ৩০ হাজার বাংলাদেশি বসবাস করেন, যাদের মধ্যে অনেকেরই বৈধ কাগজপত্র নেই। বাংলাদেশ মিশনের ওয়েবসাইট অনুসারে, তাদের অধিকাংশই কৃষি ও পর্যটনখাতে কাজ করেন এবং অনেকের নিজস্ব ব্যবসা আছে।

গত বছরের জানুয়ারি থেকে নভেম্বরের মধ্যে ৭ হাজার ৫৭৪ জন বাংলাদেশি জল ও স্থলপথে অবৈধভাবে ইউরোপে পাড়ি দিয়েছেন। তারা ইতালি, গ্রিস, স্পেন, সাইপ্রাস এবং মাল্টা উপকূলে গেছেন। জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার মতে, স্থলপথে তারা গ্রিস ও স্পেনে পাড়ি দিয়েছেন। -ডেইলি স্টার

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //