তিউনিসিয়ায় সরকারের বিরুদ্ধে জনবিক্ষোভ

উত্তর আফ্রিকার দেশ তিউনিসিয়ায় সরকার পরিবর্তন ও প্রেসিডেন্ট কায়েস সাইদের পদত্যাগের দাবিতে জনবিক্ষোভ শুরু হয়েছে।

রাজধানী কেন্দ্রীয় তিউনিসে ৫টি রাজনৈতিক দলের জোট ন্যাশনাল স্যালভেশন ফ্রন্টের ডাকে আজ সোমবার (১৬ মে) দ্বিতীয় দিনের মতো বিক্ষোভ করছেন তিউনিসরা।

এতে দেওয়া স্লোগানে বিক্ষোভকারীরা বলছেন—‘জনগণ গণতন্ত্র চায়’, ‘দেশকে দুর্ভিক্ষে ঠেলে দিয়েছেন সাইয়িদ’।

রাজনৈতিক জোটে নেমেসিস ইসলামপন্থী দল এন্নাহদা পার্টিসহ ৪টি নাগরিক সংগঠন। জোটের সমন্বয়ক দেশটির প্রবীণ রাজনীতিক নাজিব ছেবি আগামী ২৬ এপ্রিলের মধ্যে সরকারকে পদত্যাগে সময় বেঁধে দিয়েছেন।

৭৮ বছর বয়সী ছেবি তিউনিসিয়ায় স্বৈরশাসক জেইন আর আবেদিন বেন আলীর শাসনামলে বিরোধী দলের অন্যতম মুখ ছিলেন।

যদিও দ্বিতীয় দিনের বিক্ষোভে প্রত্যাশামতো জমায়েত পাননি বিক্ষোভকারীরা।

বিক্ষোভে অংশ নেওয়া ৫৭ বছর বয়সী শিক্ষক সালাহ জাওই বলেন, বিশাল বিদ্রোহে স্বৈরশাসক বেন আলীকে ক্ষমতাচ্যুত করা হয়েছিল। সেখান থেকেই আরব বসন্ত শুরু হয়েছিল। এবারেও তেমন কিছু হবে।

২০১৯ সালে রাজনৈতিক আন্দোলনের মুখে সরকারকে বরখাস্ত ও সংসদ স্থগিত করে ক্ষমতা দখল করেন সাইদ।

পরে ডিক্রি জারি করে আইন প্রণয়নের ক্ষমতা নিয়ে বিচার বিভাগের উপর নিয়ন্ত্রণ নেন।

খালেদ বেনবদেল করিম নামে এক আন্দোলনকারী এএফপিকে বলেন, সাইদ এখানে নিজের রাজত্ব কায়েম করতে চাইছেন। কিন্তু আমরা সেটা হতে দেবো না।

তিনি বলেন, সাইদ জনগণের সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন এবং গণতন্ত্র ধূলিসাৎ করেছেন। তার কোন নীতি আদর্শ নেই। 

এদিকে এই বিক্ষোভের জেরে প্রেসিডেন্ট সাইদ বলেছেন, তিনি কোন অসাংবিধানিক কাজ করেননি। বরং ২০১৪ সালের সংবিধান তাকে কাজের স্বাধীনতা দিয়েছে। সূত্র: আফ্রিকা নিউজ

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //