লিবিয়ায় অপহৃত ১১০ বাংলাদেশি মুক্ত

লিবিয়ার ত্রিপলিতে জিম্মিদশা থেকে ১১০ বাংলাদেশিকে মুক্ত করা হয়েছে।

ওই বাংলাদেশিরা লিবিয়ায় অপহৃত হয়েছিলেন এবং অর্থের জন্য তারা ব্যাপক নির্যাতনের মুখে ছিলেন।

গতকাল মঙ্গলবার (১২ জুলাই) ৪৪৪ কমব্যাট ব্রিগেড নামের লিবিয়ার একটি মিলিশিয়া বাহিনী তাদেরকে মুক্ত করে।

ইতালি ভিত্তিক একটি সংবাদ সংস্থা এএনএসএএমইডি.ইনফো সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

৪৪৪ কমব্যাট ব্রিগেড নামের লিবিয়ার মিলিশিয়া বাহিনীর বরাত দিয়ে ইতালির সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, ওই মিলিশিয়া বাহিনী তাদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে জানায়, একটি সশস্ত্র গোষ্ঠী বাংলাদেশিদের জিম্মি করে অর্থের জন্য নির্যাতন করছিল। সশস্ত্র গোষ্ঠীটি জিম্মি বাংলাদেশিদের পরিবারের কাছে মুক্তির জন্য ৫ হাজার ইউরোরও বেশি অর্থ দাবি করে। ওই বাংলাদেশিরা জিম্মি পরিস্থিতিতে ব্যাপক নির্যাতনের শিকার হয়। তাদেরকে মঙ্গলবার জিম্মি দশা থেকে উদ্ধার করে ত্রিপলিতে মুক্ত করা হয়।

এই বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট বিভাগে যোগাযোগ করে জানা গেছে, লিবিয়ার ত্রিপলিতে অবস্থিত বাংলাদেশ মিশন এখনও এই বিষয়ে মন্ত্রণালয়ে কোনও তথ্য পাঠায়নি। 

ত্রিপলির বাংলাদেশ মিশনের দূতালয় প্রধান কাজী আসিফ আহমেদ গতকাল বুধবার বিকেলে এই প্রতিবেদককে বলেন যে তিনি অফিসের কাজে অফিসের বাইরে অবস্থান করছেন। অফিসে ফিরে এই বিষয়ে খোজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন।

এদিকে, ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে অবৈধভাবে ইউরোপে যাওয়ার পথে লিবিয়ার আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে বাংলাদেশিদের আটক হওয়ার খবর নতুন কোনও ঘটনা নয়। কিছু দিন পরপরই সংবাদ মাধ্যমে এমন ঘটনার তথ্য জানা যায়। 

গত এপ্রিলে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে অবৈধভাবে ইউরোপে যাওয়ার পথে লিবিয়ার আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে ৫০০ বাংলাদেশী আটক হন। পরবর্তী সময়ে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) এবং লিবিয়া সরকারের সহায়তা নিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাদেরকে দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করে। 

ওই সময়ে পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন জানান যে বছরখানেকের মধ্যে লিবিয়া থেকে ১ হাজারেরও বেশি বাংলাদেশিকে দেশে ফিরিয়ে এনেছে, তারা সকলেই অবৈধ পথে লিবিয়া হয়ে ইউরোপ যেতে চেয়েছিল।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //