দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে

মৃত ১৮ ও শনাক্ত ১১৫৯

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে মৃত্যু ও শনাক্ত আরো বেড়েছে। এসময়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরো ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে আট হাজার ৫৪৫ জনে দাঁড়িয়েছে।

এছাড়া আরো ১ হাজার ১৫৯ জনের শরীরে নতুন করে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। যার ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫ লাখ ৫৭ হাজার ৩৯৫ জনে পৌঁছেছে।

হাসপাতাল ও বাসায় চিকিৎসা নিয়ে গত একদিনে সুস্থ হয়েছে এক হাজার ৩৮৫ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৫ লাখ ৫৭ হাজার ৩৯৫ জন।

আজ রবিবার (১৪ মার্চ) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো করোনা সংক্রান্ত নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে একথা জানানো হয়। 

এর আগে গতকাল শনিবার অধিদফতর জানায়, আগের ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে ১২ জনের মৃত্যু ও ১ হাজার ১৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মারা যাওয়া ১৮ জনের মধ্যে ১২ জন পুরুষ ও ছয়জন নারী। এদের সবাই হাসপাতালে মারা গেছেন। বিভিন্ন বিভাগে যারা মারা গেছেন তাদের মধ্যে- ঢাকায় ১০ জন, চট্টগ্রামে পাঁচজন, রাজশাহীতে দুইজন ও বরিশালে একজন রয়েছেন।

সারাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ২১৯টি পরীক্ষাগারে ১৬ হাজার ৭৯টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। অ্যান্টিজেন টেস্টসহ পরীক্ষা করা হয় ১৬ হাজার ২০৬টি নমুনা।

গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ৭.১৫ শতাংশ। এর আগে শনিবার ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ছিল ৬.২৬ শতাংশ। মোট পরীক্ষায় এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ০৭ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় মোট মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৫৩ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯১ দশমকি ৮০ শতাংশ।

গত বছরের ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের পর ১৮ মার্চ প্রথম একজনের মৃত্যুর কথা জানায় স্বাস্থ্য অধিদফতর।

এদিকে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক এবিএম খুরশীদ আলম আজ রবিবার বলেছেন, দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়তে থাকায় এখন কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি না মানলে সামনে বড় বিপদের শঙ্কা। 

তিনি সবাইকে সতর্ক করে বলেন, গেল দুই মাস আমরা স্বস্তিতে ছিলাম, তাই এখন আমরা কোনো কিছু মানছি না। সামনের দিকে আমরা আরো বড় বিপদে পড়তে যাচ্ছি যদি আমরা স্বাস্থ্যবিধি না মানি।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh