চিকিৎসক হয়রানি: পুলিশকে স্বাস্থ্য অধিদফতরের বার্তা

মুভমেন্ট পাস ও পরিচয়পত্র দেখতে চাওয়া নিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের রেডিওলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. সাঈদা শওকত জেনির সঙ্গে পুলিশ ও ম্যাজিস্ট্রেটের বিতণ্ডার বিষয়ে নিজেদের অবস্থান জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

বুধবার (২১ এপ্রিল) কভিড-১৯ পরিস্থিতি নিয়ে ভার্চুয়াল স্বাস্থ্য বুলেটিনে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মুখপাত্র ও নন-কমিউনিকেবল ডিজিজের (এনসিডিসি) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ রোবেদ আমিন বলেন, চিকিৎসক-নার্সসহ স্বাস্থ্যকর্মীরা জীবনবাজি রেখে করোনা আক্রান্ত রোগীদের স্বাস্থ্য সেবা দিচ্ছেন। শুধু যে তারা নিজেরাই ঝুঁকি নিচ্ছেন তা নয়, তাদের পরিবার পরিজনের অনেকের মৃত্যুর কারণও হয়েছেন। এ অবস্থায় তাদের প্রতি পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে আরো মহানুভবতার সঙ্গে সহযোগিতা প্রত্যাশা করি।

তিনি বলেন, চিকিৎসক, নার্সসহ স্বাস্থ্যকর্মীদের মুভমেন্ট পাস লাগবে না। এক্ষেত্রে কর্তব্যরত চিকিৎসক-নার্সদের সহযোগিতা করা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নৈতিক দায়িত্ব। আপনারা তাদের বাধাগ্রস্ত না করে সর্বোচ্চ সহযোগিতা করবেন, এটাই আমরা আশা করি।

করোনায় পুলিশ, সেনাবাহিনী, বিজিবিসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ব্যাপক কাজ করছে। করোনা মোকাবিলায় তাদের অবদান অনেক। পাশাপাশি আমাদের চিকিৎসক, নার্সসহ স্বাস্থ্যকর্মীরাও সম্মুখ সারিতে যুদ্ধ করছেন। তারা জীবনবাজি রেখে রোগীদের সংস্পর্শে গিয়ে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন। এরই মধ্যে দেড় শতাধিক চিকিৎসকসহ অসংখ্য স্বাস্থ্যকর্মী জীবন দিয়েছেন।

চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনারা শুরু থেকেই আন্তরিকতার সঙ্গে করোনা মোকাবিলায় কাজ করে যাচ্ছেন। ঝুঁকি নিয়ে করোনা রোগীদের সেবা দিচ্ছেন। আপনাদের স্বাস্থ্য অধিদফতরের পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা জানাই। আমরা সবসময় আপনাদের সঙ্গে আছি।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের এই কর্মকর্তা বলেন, চলাচলের সময় সংশ্লিষ্ট দফতর থেকে আইডি কার্ড সংগ্রহ করবেন। এছাড়া চলমান বিধিনিষেধে চলাচলের জন্য স্বাস্থ্য অধিদফতরও আইডিকার্ড দিচ্ছে। যেকোনো স্বাস্থ্যকর্মী অধিদফতরের ওয়েবসাইটে গিয়ে তা সংগ্রহ করে নিতে পারবেন। তবে যারা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন বা প্রাইভেট প্র্যাকটিস করেন, তাদের আইডি কার্ড লাগবে না। ভিজিটিং কার্ড দেখালেই চলবে।

রোবেদ আমিন বলেন, আপনাদের সরকার ঘোষিত প্রণোদনার টাকা নিয়ে রাগ, ক্ষোভ বা হতাশা রয়েছে। সরকার এরই মধ্যেই প্রথম দফায় প্রণোদনার টাকা ছাড় করেছে। ১৪টি হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য দুই মাসের বিশেষ প্রণোদনা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। পর্যায়ক্রমে বাকি হাসপাতালগুলোয়ও দেয়া হবে।

এর আগে মুভমেন্ট পাস ও পরিচয়পত্র দেখতে চাওয়া নিয়ে গত ১৮ এপ্রিল রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোডে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসক সৈয়দা শওকত জেনির সঙ্গে বিতণ্ডায় জড়ান দায়িত্বরত কয়েকজন পুলিশ সদস্য ও ম্যাজিস্ট্রেট।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh