ICT Division

প্রতি ইউনিট খুচরা বিদ্যুৎ ৯.০৩ টাকা করার প্রস্তাব

গত সোমবার (২১ নভেম্বর) পাইকারি পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম ১৯.৯২ শতাংশ বাড়িয়েছে এই খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)। এতে প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম ৫ টাকা ১৭ পয়সা থেকে বেড়ে হয়েছে ৬ টাকা ২০ পয়সা। প্রতি ইউনিটে পাইকারি বিদ্যুতের দাম বেড়েছে ১ টাকা ৩ পয়সা। নতুন দাম আগামী ডিসেম্বর থেকে কার্যকর হবে।

এদিকে বিদ্যুতের পাইকারি দাম বৃদ্ধির পর রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিপিডিবি) খুচরা পর্যায়ে প্রতি কিলোওয়াট ঘণ্টা (প্রতি ইউনিট) এক দশমিক ৪৭ টাকা বৃদ্ধি চেয়ে জ্বালানি নিয়ন্ত্রকের কাছে প্রস্তাব জমা দিয়েছে।

গতকাল বুধবার (২৩ নভেম্বর) অফিসিয়াল সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে। বিপিডিবি'র একজন শীর্ষ কর্মকর্তা বলেছেন, 'আমরা খুচরা শুল্ক প্রতি ইউনিট ১৯ দশমিক ৪৪ শতাংশ বাড়িয়ে ইউনিট প্রতি বিদ্যমান ৭ দশমিক ৫৬ টাকা থেকে ৯ দশমিক ০৩ টাকা নির্ধারণের প্রস্তাব দিয়েছি।'

সরকারি সূত্র জানিয়েছে যে, দেশে মোট ৬টি বিদ্যুৎ বিতরণ সংস্থা রয়েছে এবং বিদ্যুৎ বিভাগ তাদের সকলকে নতুন বাল্ক বিদ্যুতের শুল্ক ঘোষণার পর যত তাড়াতাড়ি সম্ভব খুচরা বিদ্যুতের শুল্ক বৃদ্ধির বিষয়ে তাদের নিজ নিজ প্রস্তাব জমা দিতে বলেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন বিপিডিবি কর্মকর্তা বলেন, বিপিডিবি বিদ্যুৎ বিভাগের অনুমোদন পাওয়ার পর মঙ্গলবার বিকালে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) কাছে খুচরা বিদ্যুতের শুল্ক বৃদ্ধির প্রস্তাব জমা দিয়েছে।'

তিনি আরও উল্লেখ করেন যে, প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপিডিবি'র খুচরা শুল্ক বৃদ্ধির প্রস্তাব বিইআরসিতে জমা দেওয়ার আগে দেখেছেন। তবে বিইআরসি চেয়ারম্যান আবদুল জলিল বলেছেন, তিনি এখনো প্রস্তাবটি দেখতে পাননি।

বিইআরসি আইন-২০০৩ অনুযায়ী, শুল্ক সমন্বয়ের বিষয়ে কোনো বিদ্যুৎ বিতরণ সংস্থার কাছ থেকে কোনো প্রস্তাব পাওয়ার পর বিইআরসি বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারদের মতামত শোনার জন্য শুনানির পদ্ধতির আলোকে একটি গণশুনানি করবে এবং তারপরে এটি শেষ হওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে তার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করবে।

বাল্ক শুল্ক বাড়ানোর পর নসরুল হামিদ বলেছেন, এখনই বাল্ক বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি জনসাধারণের ওপর কোনো প্রভাব ফেলবে না। তবে তিনি বলেন, সরকার গ্রাহকদের জন্য নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করতে চায়। 'তাই বিদ্যুতের শুল্ক সমন্বয়ের প্রয়োজন ছিল।'

তিনি আরও বলেন যে, খুচরা পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির জন্য বিদ্যুৎ বিতরণ সংস্থাগুলো বিইআরসিতে জমা দিতে তাদের প্রস্তাব প্রস্তুত করছে।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, 'বিইআরসি ভবিষ্যতে খুচরা গ্রাহকদের ওপর কোন প্রভাব ফেলবে কিনা তা পরীক্ষা করবে।'

কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) এএসএম শামসুল আলম বলেন, গণশুনানির জন্য অধিকার গোষ্ঠীটি তাদের মতামত উপস্থাপন করবে।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //