ঈদের আগে ফিরছেন না এমভি আবদুল্লাহর নাবিকরা

যেকোনো সময় মুক্তি পাবে বাংলাদেশি মালিকানাধীন জাহাজ এমভি আবদুল্লাহর জিম্মি ২৩ নাবিক। তবে কবে নাগাদ নাবিকরা মুক্তি পাচ্ছেন, সে বিষয়টি সুনির্দিষ্ট করে জাহাজ মালিকদের কেউ জানাতে পারেননি। তারা বলেছেন, জলদস্যুদের সঙ্গে আলোচনায় অগ্রগতি আছে। যেকোনো সময় নাবিকরা মুক্তি পাবেন। তবে ঈদের আগে নাবিকদের দেশে ফেরানো যাচ্ছে না।

এদিকে জিম্মি নাবিকদের স্বজনরা অপেক্ষায় আছেন ঈদের আগে তারা বাড়িতে ফিরবে এমন আশায়। মুক্তি পেলেও ঈদের আগে দেশে ফিরিয়ে আনা সম্ভব নয় বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

আনোয়ারা উপজেলার বাসিন্দা শামসুদ্দিন। তিনি জাহাজটিতে ওয়েলার পদে কর্মরত। তার স্ত্রী রিমা আক্তার গণমাধ্যমকে বলেন, আমাদের ঘরে ঈদের আনন্দ নেই। ছোট তিন মেয়েকে নিয়ে বেশ কষ্টে আছি। পথ চেয়ে আছি কখন তাকে ফিরে পাবো। শোনার অপেক্ষায় আছি তারা দস্যুদের কবল থেকে মুক্তি পেয়েছেন। তিনি যখন আমাদের মাঝে ফিরে আসবেন তখন আমাদের ঘরে ঈদ আনন্দ আসবে।

শামসুদ্দিনের ভগ্নিপতি বদরুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, শামসুদ্দিন এক-দুই দিন পর ফোন করে। তারা বর্তমানে ভালো আছেন। দস্যুরা অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে পাহারায় থাকলেও তারা জাহাজের নিয়মিত কাজ করছেন। জাহাজ মালিকের সঙ্গে দস্যুদের আলোচনা হচ্ছে, বিষয়টি নাবিকরা বুঝতে পারছেন। তবে কবে মুক্ত হচ্ছেন তা বলতে পারছেন না।

কবির গ্রুপের মিডিয়া উপদেষ্টা মিজানুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, দস্যুদের সঙ্গে আলোচনা ফলপ্রসূ। যেকোনো সময় জিম্মিদশা থেকে নাবিকরা মুক্তি পাবেন। কখন মুক্তি পাচ্ছেন তা সুনির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না। মুক্তি ঈদের আগেও হতে পারে, আবার ঈদের পরেও হতে পারে। মুক্তি পাওয়ার পর সব প্রক্রিয়া শেষ করে নাবিকদের আকাশপথে দেশে ফিরিয়ে আনা হবে। ওই জাহাজে নতুন করে ২৩ জনকে দায়িত্ব দেওয়া হবে। ইতোমধ্যে এমভি আবদুল্লাহ জাহাজের জন্য ২৩ জন নাবিকের নতুন একটি টিম প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

উল্লেখ্য, এমভি আবদুল্লাহ জাহাজটি কবির গ্রুপের এস আর শিপিংয়ের মালিকানাধীন।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2024 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //