ভারত থেকে রোহিঙ্গাদের জোরপূর্বক বাংলাদেশে পাঠানোর বিরুদ্ধে জাতিসংঘ

ভারত থেকে মায়ানমারের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জোরপূর্বক বাংলাদেশে পাঠানোর অভিযোগ তুলেছে আইনি প্রতিষ্ঠান গুয়ের্নিকা থার্টিসেভেন। তারা এই বিষয়ে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের (আইসিসি) কাছে তদন্তের দাবিও জানিয়েছে। 

আজ বৃহস্পতিবার (৩০ মে) জাতিসংঘের নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে বিষয়টি নিয়ে সংস্থাটির মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিক বলেছেন, শরণার্থীদের জোরপূর্বক ঠেলে দেওয়ার বিরুদ্ধে জাতিসংঘের অবস্থান অত্যন্ত দৃঢ়।

একইসঙ্গে শরণার্থীদের কেবল স্বেচ্ছায় তাদের নিজ দেশে নিরাপত্তা এবং সম্মানের সঙ্গে ফেরত পাঠানোর সুযোগ দিতে হবে বলেও জানিয়েছে সংস্থাটি।

জাতিসংঘ মহাসচিবের মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিক বলেন, স্পষ্টতই, বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গাকে থাকার জায়গা করে দিয়ে বাংলাদেশ খুব উদারতার পরিচয় দিয়েছে। এবং আমি মনে করি বাংলাদেশের বিভিন্ন কমিউনিটিও এই বিষয়ে উদারতার পরিচয় দিয়ে যাচ্ছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় সেখানে আমাদের মানবিক কার্যক্রমে সমর্থন অব্যাহত রাখবে বলে আমি আশাবাদী।

তিনি বলেন, নিরাপদ নয় এমন জায়গায় শরণার্থীদের জোরপূর্বক ঠেলে দেওয়ার বিরুদ্ধে আমাদের অবস্থান অত্যন্ত দৃঢ়। শরণার্থীদের কেবল নিরাপদ এবং মর্যাদাপূর্ণ উপায়ে স্বেচ্ছায় তাদের দেশে ফিরে যাওয়ার সুযোগ দেওয়া উচিত বলেও মন্তব্য করেন জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের এই মুখপাত্র।

উল্লেখ্য, গুয়ের্নিকা থার্টিসেভেন চেম্বারস নামে একটি আন্তর্জাতিক অলাভজনক সংস্থা ভারত থেকে বাংলাদেশে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জোরপূর্বক বিতাড়নের ঘটনা তদন্তের জন্য আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে (আইসিসি) প্রসিকিউটরের অফিসে (ওটিপি) অভিযোগ জমা দিয়েছে।

গতকাল বুধবার (২৯ মে) দাখিল করা এই অভিযোগে গুয়ের্নিকা থার্টিসেভেন বলেছে, ভারতীয় কর্মকর্তারা রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে ফেরত পাঠাচ্ছে যা তদন্ত করা আইসিসির কার্যক্ষমতার আওতায় পড়ে। আইসিসি বর্তমানে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সংঘটিত মানবতার বিরুদ্ধে সম্ভাব্য অপরাধের তদন্ত করছে।

২০১৬ সাল থেকে বার্মিজ সামরিক বাহিনী জাতিগত নিধনযজ্ঞ চালিয়ে প্রায় সাড়ে ৭ লাখ রোহিঙ্গাকে মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশ থেকে বিতাড়িত করেছে। রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সংঘটিত এই অপরাধকে গণহত্যা বলে মনে করে থাকে যুক্তরাষ্ট্র।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2024 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //