ICT Division

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের পর বন্দরের কার্যক্রম শুরু

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের ক্ষয়ক্ষতি কমাতে জাহাজ-শূন্য করা চট্টগ্রাম বন্দর জেটিতে মঙ্গলবার (২৫ অক্টোবর) প্রথম ভিড়েছে বাল্ক ক্যারিয়ার ‘এমভি হ্যাপি হিরো’। সকাল আটটা থেকে শুরু হয়েছে বন্দরের কনটেইনার ও পণ্য ডেলিভারি কার্যক্রম। ক্রমে স্বাভাবিক হচ্ছে বন্দরের কার্যক্রম।  

দ্রুততম সময়ে কনটেইনার হ্যান্ডলিং ইক্যুইপমেন্ট কিগ্যান্ট্রি ক্রেন থাকা সিসিটি ও এনসিটির মধ্যে প্রথম জাহাজ ভিড়েছে ১১টা ৫০ মিনিটে। HR AARAI নামের জাহাজটি এনসিটির ৩ নম্বর বার্থে ভিড়েছে।

বন্দরের কর্মকর্তারা জানান, ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানার আগেই বন্দর চ্যানেল নিরাপদ রাখার স্বার্থে জেটির সমুদ্রগামী জাহাজগুলো বহির্নোঙরে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল।

পরিস্থিতি অনুকূলে আসায় মঙ্গলবার সকাল সাড়ে আটটা থেকে জাহাজগুলো ফিরিয়ে আনার কাজ শুরু করা হয়। নিয়ম অনুযায়ী বন্দরের নিজস্ব অভিজ্ঞ পাইলটরা জাহাজগুলো বহির্নোঙর থেকে নিয়ে আসেন।

তিনি জানান, দুপুর ১২টার মধ্যে ১৭টি জাহাজ বহির্নোঙর থেকে জিসিবি, এনসিটি, সিসিটিসহ বিভিন্ন বার্থে ভিড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে। এ কাজে বন্দরের ৭টি টাগবোট সহায়তা করছে। 

বন্দরের পরিচালক (পরিবহন) এনামুল করিম বলেন, আবহাওয়া অধিদপ্তর সতর্কতা সংকেত নামানোর পর মঙ্গলবার সকাল আটটা থেকে ডেলিভারি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে বন্দরে জাহাজ ভিড়তে শুরু করেছে। শিগগির কনটেইনার ও কার্গো হ্যান্ডলিং কার্যক্রম শুরু হবে।  

আবহাওয়া অধিদপ্তর চট্টগ্রাম, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে দেখানো ৭ নম্বর বিপদ সংকেত নামিয়ে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলেছে।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //