রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের অবরুদ্ধ শিক্ষক-কর্মকর্তারা ১০ ঘণ্টা পর মুক্ত

সিরাজগঞ্জে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে অবরুদ্ধ শিক্ষকসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ১০ ঘণ্টা পর পুলিশের হস্তক্ষেপে মুক্ত হয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, রেজিস্টার, কর্মকর্তাসহ প্রায় ৩০ জন অবরুদ্ধ থাকার পর গতকাল রবিবার (২৪ অক্টোবর) গভীর রাতে মুক্ত হয়েছেন।

গত ২৬ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ অধ্যয়ন বিভাগের ১৬ শিক্ষার্থীর মাথার চুল কেটে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে বিভাগের চেয়ারম্যান সহকারী প্রক্টর ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনের বিরুদ্ধে। ফারহানা বাতেনের স্থায়ী বহিষ্কারের দাবিতে অনড় বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। তবে নিয়মের বাইরে কিছুই করার নেই বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

পরে গতকাল রবিবার (২৪ অক্টোবর) সকাল থেকেই বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা রাস্তা অবরোধ করে আন্দোলন শুরু করেন। পরিস্থিতি মোকাবিলায় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলোচনা করতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, রেজিস্টারসহ কর্মকর্তারা একাডেমিক ভবনে গেলে শিক্ষার্থীরা তাদের বিকেল থেকে আটকে রাখেন বলে জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের দায়িত্বে থাকা শিক্ষক রওশন আলম।

তিনি বলেন, আন্দোলনকারীরা তাদের কোনো কথা না শুনেই প্রায় ১০ ঘণ্টা একাডেমিক ভবনে তালাবদ্ধ করে রাখেন। এসময় একজন শিক্ষক অসুস্থ হয়ে পড়লে রাত ২টার পর তাদের মুক্তি দেয়া হয়।

রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃতি ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ স্টাডিজ বিভাগের ১৪ ছাত্রের চুল কেটে দেওয়ার ঘটনার জের ধরে ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে আন্দোলন করে আসছেন শিক্ষার্থীরা। যদিও প্রশাসনের আশ্বাসে ২ অক্টোবর আন্দোলন থেকে সরে আসেন আন্দোলনকারীরা।

গত বৃহস্পতিবার এ ঘটনায় তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার পর শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের সভায় তদন্ত প্রতিবেদন নিয়ে আলোচনা হয়। কিন্তু অভিযুক্ত শিক্ষকের বিষয়ে কোনও সিদ্ধান্ত ছাড়া সভা শেষ হওয়ার পর শুক্রবার রাত থেকে আবারও আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। আন্দোলনকারীদের মধ্যে সাতজন সেসময় অনশন শুরু করেন।

চলমান অস্থিতিশীল পরিস্থিতির বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্টার মো. সোহরাব আলী বলেন, ‘এটি একটি আইনি প্রক্রিয়া। শিক্ষার্থীরা কোনো কিছু না বুঝে আবেগ দিয়ে আন্দোলন করার চেষ্টা করছে, ফলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। তদন্ত প্রতিবেদন নিয়ে সিন্ডিকেট সভায় আলোচনা হয়েছে। আইন সংশোধন করে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। এজন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কাজ করছে।’

চলমান পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ ও তদন্ত করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) একটি দল আগামী ২৭ অক্টোবর রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় পরিদর্শন করবে বলে বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //