ম্যাচ রেফারির রিপোর্টের অপেক্ষায় সাকিবের শাস্তি

গণমাধ্যমের সাথে কথা বলছেন কাজী ইনাম।

গণমাধ্যমের সাথে কথা বলছেন কাজী ইনাম।

ঢাকার ক্লাব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা-সিসিডিএম চেয়ারম্যান কাজী ইনাম জানিয়েছেন, খেলার মধ্যে উত্তেজনাবশত এমন ঘটনা অস্বাভাবিক নয়। তবে সাকিবের ঘটনা দুর্ভাগ্যজনক। ম্যাচ রেফারির রিপোর্টের অপেক্ষায় আছে সিসিডিএম। রিপোর্ট পেলে জানা যাবে মোহামেডান অধিনায়কের কোনো শাস্তি হচ্ছে কি না।

কাজী ইনাম বলেন, ‘খেলার মাঠে অনেক কিছুই হয়। আজকে আবাহনী মোহামেডানের খেলা ছিল এবং সেখানে অনেক উত্তেজনা থাকে। একটা ঘটনায় আমরা সাকিব আল হাসানকে দেখতে পেলাম। এটা ফেসবুক লাইভ এবং ইউটিউব লাইভও ছিল। সুতরাং আপনারা সবাই দেখতে পেয়েছেন। এটা দুর্ভাগ্যজনক, ক্রিকেট এমন একটা খেলা যেখানে মুহূর্তের উত্তেজনায় এমন কিছু হয়ে যায়। কিন্তু আমরা আশা করি সব সময় খেলোয়াড়েরা নিজেদের আবেগ নিয়ন্ত্রণ করবে।’

তার ভাষ্য, ‘আমাদের এখানে যেটি হচ্ছে আপনি দেখেন যেকোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচে যেরকম থাকে, আমাদের এখানেও একই। এখানে টিম নিয়ন্ত্রণে আমাদের যারা দেখে, মূলত ম্যাচ রেফারি যারা দেখে, ম্যাচ আম্পায়ার্স, তারা একটা রিপোর্ট দেবে। আমরা আশা করছি আজ তাদের রিপোর্ট আসবে। সব নিয়ম কিন্তু আছে, আপনি কোনো নিয়ম ভাঙলে বা এমন যাই আসুক না কেন আমরা সেভাবেই ব্যবস্থা নেব।’ 

ঘটনার সূত্রপাত আবাহনীর রান তাড়ার পঞ্চম ওভারে। মুশফিকুর রহিমকে করা সাকিবের বলটা লেগেছিল তার পায়ে। দুই হাত তুলে আবেদন করেন সাকিব। আম্পায়ার ইমরান পারভেজ নাকচ করলেন ওই আবেদন। কয়েক সেকেন্ড না যেতেই সাকিব যেন হারিয়ে ফেললেন নিজেকে। 

স্টাম্পে লাথি মেরে ভেঙে ফেললেন। এরপর ক্ষিপ্ত হয়ে কথা বললেন আম্পায়ার ইমরান পারভেজের সঙ্গে। পরে ওই ঘটনা থামল সেখানেই। সাকিব এরপর চলে গেলেন ফিল্ডিং করতে। 

ঘটনা সেখানেই থামেনি। আরও বড় ঘটনাটি ঘটে ম্যাচের ষষ্ঠ ওভারে। পঞ্চম বলের পর বৃষ্টি নামলে আম্পায়াররা সিদ্ধান্ত নেন খেলা বন্ধ করার। তবে তাদের এমন সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ হন সাকিব। এক পর্যায়ে আম্পায়ারের সঙ্গে তর্ক করতে করতে স্টাম্প তুলে আছাড় মারেন তিনি। ড্রেসিংরুমে ফেরার সময় তর্কে জড়ান আবাহনী কোচ খালেদ মাহমুদ সুজনের সঙ্গেও।

পরে অবশ্য আবাহনীর ম্যানেজার মাসুদ ইকবাল মামুন জানান, ‘ঘটনার পর সাকিব এসেছিলেন আমাদের ড্রেসিংরুমে। তিনি আমাদের কাছে এই ঘটনার জন্য ক্ষমা চেয়েছেন। সেখানে খালেদ মাহমুদ সুজনও ছিলেন। বিষয়টি মীমাংসা হয়ে গেছে। পরে দুজন বুক মিলিয়েছেন।’

মীমাংসা হলেও কাজী ইনামের ভাষ্য অনুযায়ী, ম্যাচ রেফারির রিপোর্টে শাস্তি পেতে যাচ্ছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh