দ্বিতীয় স্ত্রীকে নির্যাতন, আত্মগোপনে বকশীগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান

জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলার নীলাখিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নজরুল ইসলাম সাত্তার এবং তার প্রথম স্ত্রীর বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে। 

মামলার বাদী ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম সাত্তারের ২য় স্ত্রী উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহানারা বেগম। গত শুক্রবার  (১৬ অক্টোবর) রাতে বকশীগঞ্জ থানায় ওই মামলাটি দায়ের করেন তিনি।

বকশীগঞ্জ থানার ওসি শফিকুল ইসলাম সম্রাট মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।এদিকে, মামলার দায়েরের পর থেকেই ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম সাত্তার পলাতক রয়েছেন।

মামলা সূত্রে জানায়, রাজনৈতিক সূত্র ধরে পরিচয়ের একপর্যায়ে উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহানারা বেগমকে বিয়ের প্রস্তাব দেয় ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম সাত্তার। জাহানারা বেগম তাকে তার প্রথম স্ত্রীর কথা বললে ইউপি চেয়ারম্যান জানায়, ‘তাকে তালাক দিয়েছি।’

পরবর্তীতে ২০১৯ সালের ১১ মার্চ ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম সাত্তারের সাথে একই উপজেলার ধানুয়া কামালপুর গ্রামের মুক্তিযোদ্বা আবুল হোসেনের মেয়ে জাহানারা বেগমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম সাত্তার ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। টাকা দিতে আপত্তি করায় নজরুল ইসলাম সাত্তার জাহানারাকে মারপিট করেন এবং একপর্যায়ে তালাক দেন। পরে জাহানারা বেগম জামালপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে সাত্তার চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের উভয়পক্ষ আপোষ মিমাংসা হয়ে চলতি বছরের ১৮ মার্চ রেজিঃ কাবিনমূলে পুণরায় জাহানারকে বিয়ে করেন নজরুল ইসলাম সাত্তার।

দ্বিতীয় দফায় বিয়ের পর ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম সাত্তার আবারো মোটা অংকের যৌতুক দাবি করেন। যৌতুক না দেওয়ায় জাহানারাকে গত ১৩ অক্টোবর বেদম মারপিট করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেন। চিকিৎসা শেষে ১৬ অক্টোবর জাহানারা বেগম স্বামী ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম সাত্তার ও তার প্রথম স্ত্রীর বিরুদ্ধে বকশীগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন (মামলা নং ১৭, ধারা ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের (সংশোধনী /০৩) এর ১১(গ)/৩০)।

মামলার দায়েরের পর থেকেই ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম সাত্তার পলাতক রয়েছে। তার মোবাইল ফোনও বন্ধ থাকায় মামলার ব্যাপারে তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।


মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh