ঠাকুরগাঁওয়ে পৌর নির্বাচন: মামলা হামলায় বিএনপির প্রতিবাদ

আসন্ন ঠাকুরগাঁও পৌরসভা নির্বাচন ২০২১ চলাকালীন সময়ে সরকার দলীয় প্রার্থী ও নেতা কর্মীদের আচরণবিধি ভঙ্গ, ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ ও ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে না যেতে ভয়ভীতি প্রদর্শনসহ মামলা হামলা ও গ্রেফতারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে জেলা বিএনপি।

বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ঠাকুরগাঁও জেলা বিএনপি কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমানের সভাপতিত্বে জেলা বিএনপি কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এই সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের ছোটো ভাই ঠাকুরগাঁওয়ের বর্তমান পৌর মেয়র ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সাল আমীন।

এ সময় ঠাকুরগাঁও পৌরসভার বিএনপি মনোনীত প্রার্থী শরিফুল ইসলাম শরিফসহ বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

লিখিত বক্তব্যে মির্জা ফয়সাল বলেন, নির্বাচনের আগেই নৌকা প্রতীকের কর্মী, সমর্থক ও আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতা কর্মীরা আমাদের নির্বাচনী প্রচারণায় বাধা প্রদান, পোষ্টার ছেঁড়া, কর্মীদের মারপিট, ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে না যেতে প্রকাশ্যে হ্যান্ড মাইকে হুমকি প্রদান তথা নির্বাচনী কার্যক্রম থেকে কর্মীদের বিরত রেখে পৌরসভা জুড়ে ভীতিকর ও ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে নির্বাচনের ফলাফল তাদের পক্ষে নেয়ার চেষ্টা করছে। রিটার্নিং অফিসার বরাবরে অভিযোগ করলেও কোনো প্রতিকার মিলেনি। উল্টো পরিকল্পিতভাবে ঘটনা সাজিয়ে আমাদের নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে আমাদের দুইজন পোলিং এজেন্টসহ আটজনকে গ্রেফতার ও অবর্ণনীয় হয়রানী করা হচ্ছে।

এসময় জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান বলেন, কিছু মানুষ বলে বিএনপি ভোট বর্জনের সংস্কৃতি চালু করছে। আর আমরা বলছি ভোট বর্জন করতে আমরা বাধ্য হচ্ছি। আমরা চেষ্টা করবো ঠাকুরগাঁওয়ের সংস্কৃতি যাতে নষ্ট না হয়।

বিএনপির মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী শরিফুল ইসলাম শরিফ বলেন, আমরা আগে দেখবো ভোটের পরিবেশ থাকছে কি না। তারপর আমরা দলীয় সিদ্ধান্ত নিব ভোট বর্জনের ব্যাপারে।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh