অবৈধ রেলক্রসিং যেন মৃত্যুফাঁদ

রেলক্রসিং

রেলক্রসিং

চাঁদপুর-লাকসাম রেলপথ যেন মৃত্যুফাঁদে পরিণত হয়েছে। প্রতিনিয়ত এই রেলপথ এবং রেলক্রসিংয়ে ঘটছে প্রাণহানি সহ দুর্ঘটনা। অব্যবস্থাপনা, সংশ্লিষ্টদের দায়িত্বে অবহেলা, রেললাইনের কাছ ঘেঁষে দোকানপাটসহ অবৈধ স্থাপনা নির্মাণকে দায়ী করছেন স্থানীয়রা।  

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, চাঁদপুর-লাকসাম দূরত্বে রেলপথ ৫২ কিলোমিটার। এই দীর্ঘ রেলপথে গুরুত্বপূর্ণ ৩৭টি রেলক্রসিংয়ের মধ্যে অবৈধ রেলক্রসিং ১৩টি। এ ছাড়া ছোট ছোট আরও শতাধিক রেলক্রসিং রয়েছে। রেলপথের দু’দিক দিয়ে গড়ে উঠেছে অবৈধ স্থাপনা এবং হাট-বাজার।

অথচ রেলওয়ে আইন অনুযায়ী, রেলপথের দু’পাশে অন্তত ১০ ফুট এলাকায় চলাচল আইনত সম্পূর্ণ নিষিদ্ধসহ ওই সীমানার ভেতর কেউ প্রবেশ করলে তাকে গ্রেফতারের বিধান রয়েছে। এমনকি ওই সীমানায় গবাদিপশু প্রবেশ করলে তা বিক্রি করে এর অর্থ সরকারের কোষাগারে জমা দিতে হয়। অথচ এসব নিয়ম যেন কাগজে কলমে। 

এসব ঝুঁকিপূর্ণ রেল ক্রসিংগুলোতে রেল কর্তৃপক্ষ ‘সতর্কীকরণ’ সাইনবোর্ড টানিয়ে দেওয়া ছাড়া তাদের যেন আর কিছুই করার নেই। চাঁদপুর-লাকসাম রেলপথের ঊর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী লিয়াকত হোসেন মজুমদার জানান, বর্তমানে ১৩টি রেলক্রসিং অবৈধ রয়েছে। এগুলো দুর্ঘটনার জন্য দায়ী।

বাংলাদেশ রেলওয়ে ডিভিশনাল অফিসার মাহবুবুল করিম জানান, অবৈধ রেলক্রসিং সম্পর্কে আমার জানা নেই। আমরা কাজ করি অবৈধ স্থাপনা নিয়ে। গত দুই বছরে এ এলাকায় কোনো উচ্ছেদ অভিযান চলেনি। তবে অচিরেই অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করার চিন্তা-ভাবনা করছি।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh