খুলনার তিন হাসপাতালে আরো ১৫ জনের মৃত্যু

খুলনার শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে ভর্তির জন্য অপেক্ষা। ছবি : স্টার মেইল

খুলনার শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে ভর্তির জন্য অপেক্ষা। ছবি : স্টার মেইল

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ও এর উপসর্গ নিয়ে খুলনার তিনটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরো ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে সাতজন, খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে দুইজন ও বেসরকারি গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে।

আজ রবিবার (৪ জুলাই) সকাল ৮ টা পর্যন্ত আগের ২৪ ঘণ্টায় তাদের মৃত্যু হয়।

করোনা হাসপাতালের ফোকালপারসন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে ছয়জন করোনায় আক্রান্ত ছিলেন, বাকি একজনের উপসর্গ ছিল। তারা হলেন- খুলনার দৌলতপুরের বেগম (৫০), খানজাহান আলী রোডের শেখ ওহিদুজ্জামান (৬৮), দোলখোলা এলাকার আনোয়ারা (৬২), খুলনা সদরের সরদার হায়বাদ আলী (৫৫), বাগেরহাটের ফুনিয়াবাই এলাকার জাহাঙ্গীর (৫২) ও বাগেরহাটের ডাকবাংলো এলাকার ইলিয়াস ফকির (৬০) ও হাসপাতালের ইয়েলো জোনে উপসর্গ নিয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে। তিনি আরো বলেন, হাসপাতালটিতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১৯৭ জন। যারমধ্যে রেড জোনে ১০২ জন, ইয়ালো জোনে ৪১ জন, আইসিইউতে ২০ জন ও এইচডিসিতে ২০ জন রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৩৮ জন এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৫০ জন।

বেসরকারি গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের স্বত্ত্বাধিকারী ডা. গাজী মিজানুর রহমান জানান, হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ২৪ ঘণ্টায় ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেন- ডুমুরিয়ার জাকির হোসেন (৫০) ওসালেহা বেগম (৬৭), বাগেরহাটের কাজী আহাদ (২৬), খুলনার বানিয়াখামার আফতাব হোসেন (৭৬), নড়াইলের হালিমা (৫৫) ও মিন্টু বিশ্বাস (৮১)। 

তিনি আরো বলেন, হাসপাতালটিতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১১৫ জন, এরমধ্যে এইচডিইউতে আছেন আটজন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ২৩ জন, আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২২ জন।

জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ জানান, খুলনার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে টুটপাড়ার জহুরুল হক (৬৫) ও ডুমুরিয়ার জাহানারা বেগম (৬০)  নামের দুই রোগীর মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালটিতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৬৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ১৫ জন, আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৮ জন।

গতকাল শনিবার (৩ জুন) খুলনার শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে ৪৫ শয্যা বিশিষ্ট করোনা ইউনিট চালু হয়েছে। হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. প্রকাশ চন্দ্র দেবনাথ জানান, আজ সকাল ৮টা পর্যন্ত সেখানে ২৪ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে আইসিইউতে ছয়জন চিকিৎসাধীন। তবে কেউ মারা যাননি।

খুলনা মেডিকেল কলেজের (খুমেক) আরটি পিসিআর ল্যাব ‘দূষিত’ হওয়ায় গত বৃহস্পতিবার থেকে বন্ধ রয়েছে করোনার নমুনা পরীক্ষা। গতকাল বিকেল থেকে ল্যাব চালু হওয়ার কথা থাকলেও তা হয়নি। খুমেকের উপাধ্যক্ষ ডা. মেহেদী নেওয়াজ জানিয়েছেন, দ্রুত ল্যাব চালুর চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh