নদীতে ধরা পড়ল আড়াই কেজির ইলিশ

আড়াই কেজি ওজনের ইলিশ

আড়াই কেজি ওজনের ইলিশ

কক্সবাজারের টেকনাফ নাফ নদীতে এবার ধরা পড়ল আড়াই কেজি ওজনের একটি ইলিশ। মাছটির ওজন ২ কেজি ৪০০ গ্রাম।  টেকনাফের প্যারাবন সংলগ্ন নাফ নদীতে এক জেলের জালে মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) সন্ধ্যায় ইলিশটি ধরা পড়ে।

বিশাল ইলিশটি ধরা পড়ার পরই দেরি না করে ওই জেলে টেকনাফ পৌরসভার বাসস্টেশন এলাকার মাছ বাজারে সেটি বিক্রি করতে চলে যায়। একই সময় ৪০০ গ্রাম ওজনের আরো তিনটি মাছ ধরা পড়ে। পরে সব কটি মাছ আড়াই হাজার টাকায় মোজাহার আলম নামে এক মাছ ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করে দেন।

মাছগুলো কেনার পরই ওই মাছ ব্যবসায়ী বড় ইলিশটির দাম হাঁকাচ্ছেন ৩ হাজার ৬০০ টাকা। আর বাকি মাছগুলো ৫০০ টাকা কেজি দাম হলে বিক্রি করবেন বলে জানান।

স্থানীয় জেলেরা জানান, রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ ও ইয়াবা পাচারের অভিযোগে ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসের শুরু থেকে নাফ নদীতে মাছ ধরা বন্ধ করে দেয় বিজিবি। সেই থেকে প্রায় চার বছর ধরে মাছ ধরা বন্ধ রয়েছে। এর মধ্যে কিছু জেলে জীবিকার তাগিদে রাতের অন্ধকারে মাছ শিকার করছেন।

তবে করোনা বিধিনিষেধে জীবিকার তাগিদে মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) বিকেলে ওই জেলে ইলিশ ধরার জন্য প্যারাবন সংলগ্ন নাফ নদীতে জাল ফেলে আসেন। সন্ধ্যার পর জাল তুলে দেখেন, জালে ছোট-বড় চারটি ইলিশ ধরা পড়েছে। এর মধ্যে একটি মাছ বিশাল। সেটির ওজন ২ কেজি ৪০০ গ্রাম। বাকি মাছগুলোর ওজন ৩৫০ থেকে ৪০০ গ্রামের মতো।

টেকনাফ উপজেলা জ্যেষ্ঠ মৎস্য কর্মকর্তা মো. দেলোয়ার হোসেন জানান, আড়াই কেজির ইলিশের দেখা সহজে মেলে না। নাফ নদীতে দীর্ঘ চার বছর ধরে মাছ ধরা বন্ধ থাকায় ইলিশগুলো বড় হয়েছে।

স্থানীয় জেলেদের অভিযোগ, তারা নাফ নদী থেকে মাছ ধরতে না পারলেও মিয়ানমারের জেলেরা অবাধে নাফ নদী থেকে মাছ শিকার করে নিয়ে যাচ্ছেন। এতে তারা আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়ছেন। পরিবার নিয়ে তাদের চরম কষ্টে দিনাতিপাত করতে হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //