চাঁদপুরে সীমিত সময়ের জন্য বাস-লঞ্চ চলাচল শুরু

পোশাক শ্রমিকদের ঢাকা নিতে সীমিত সময়ের জন্যে লঞ্চ ও বাস চলাচলের অনুমতি দিয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ।

পোশাক শ্রমিকদের ঢাকা নিতে সীমিত সময়ের জন্যে লঞ্চ ও বাস চলাচলের অনুমতি দিয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ।

পোশাক শ্রমিকদের ঢাকা নিতে সীমিত সময়ের জন্যে লঞ্চ ও বাস চলাচলের অনুমতি দিয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ। এই ঘোষণার পর রবিবার (১আগস্ট) ভোর ৬টা থেকে চাঁদপুর থেকে ঢাকা অভিমুখে লঞ্চ চলাচল শুরু হয়। চাঁদপুর লঞ্চঘাটে ঢাকামুখী যাত্রীদের যেন ঢল নামে। আশপাশের জেলার হাজার হাজার যাত্রী চাঁদপুর ঘাটে ভিড় জমায়।

হঠাৎ করে যাত্রীদের চাপ এবং স্বাস্থ্যবিধি রক্ষায় বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ প্রতিটি লঞ্চকে নির্দিষ্ট সময়ের আগে ঘাট ছাড়তে বাধ্য করে। তাদের সহায়তা করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রিক্তা খাতুনের নেতৃত্বে জেলা ও নৌ পুলিশের সদস্যরা।

সরেজমিনে লঞ্চঘাটে গিয়ে দেখা যায়, পোশাক শ্রমিকদের চেয়ে সাধারণ যাত্রীর চাপ ছিল বেশি। এ জন্য লঞ্চ মালিক কর্তৃপক্ষ ঢাকা থেকে অতিরিক্ত লঞ্চের ব্যবস্থা করে। যাত্রীদের সাথে কথা বললে তারা জানান, ঈদে বাড়ি ফেরার পর কঠোর বিধিনিষেধে আটকা পড়েন তারা। তাই এখন একটু সুযোগ পাওয়ায় কর্মস্থলে ফিরে যাচ্ছেন। অনেকেই চাকরিতে যোগদান এবং চিকিৎসা নিতেও যাচ্ছেন।

ঘাটে দায়িত্বরত বিভিন্ন লঞ্চের প্রতিনিধিরা জানান, অতিরিক্ত যাত্রীর চাপে সকাল ৬টার রফরফ-৭ ভোর ৫টা ৪০ মিনিটে চাঁদপুর ঘাট ছাড়ে। সকাল ৭টা ২০ মিনিটের সোনারতরী সকাল সাড়ে ৬টায়, সকাল ৮টার ইগল-৭ সকাল ৭টায়, সকাল ৯টার ইগল সকাল সোয়া ৭টায় চাঁদপুর ঘাট ছেড়ে ঢাকার উদ্দেশে যায়।

ইগল লঞ্চের সুপারভাইজার আলী আজগর বলেন, পোশাকশ্রমিকদের কথা চিন্তা করে সরকার সীমিত সময়ের জন্য লঞ্চ চালুর সিদ্ধান্ত নেওয়ায় আমরা তিনটি লঞ্চ ঢাকা থেকে খালি নিয়ে আসি। কিন্তু প্রশাসনিক চাপে আমাদের লঞ্চগুলো চাঁদপুর থেকে ঢাকায় যাওয়ার জন্য নির্দিষ্ট যাত্রী তোলার আগেই ঘাট ছেড়ে দিতে বাধ্য করা হচ্ছে। এতে আমাদের লোকসান গুনতে হচ্ছে।

নৌ পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাহিদুল ইসলাম বলেন, নির্দিষ্টসংখ্যক যাত্রী ওঠার পর লঞ্চগুলো সময়ের আগেই ঘাট ছাড়া নিশ্চিত করা হয়েছে।

চাঁদপুর বিআইডব্লিউটিএর উপপরিচালক কায়সারুল আলম বলেন, আমরা ভোর থেকে ঘাটে অবস্থান করছি, যাতে কোনো লঞ্চে অধিক যাত্রী না উঠতে পারেন। তা ছাড়া প্রতিটি লঞ্চে জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা ঘুরে ঘুরে দেখেন, সেখানে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে কি না।’

এদিকে সবশেষ খবরে জানা যায়, রফতানিমুখী শিল্প-কারখানায় কাজে যোগ দিতে শ্রমিকদের পরিবহনের জন্য লঞ্চ চলাচলের সময় বাড়িয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)। সংস্থাটির নতুন সিদ্ধান্ত হলো, যাত্রী বেশি থাকায় ২ আগস্ট সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত লঞ্চ চলাচল করবে।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //