‘১০ কোটি টাকা’ আত্মসাতের অভিযোগে নারী আটক

ছবি: সাম্প্রতিক দেশকাল

ছবি: সাম্প্রতিক দেশকাল

হালাল উপার্জনের প্রলোভন দেখিয়ে সাধারণ মানুষের কাছে থেকে প্রায় ১০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে পাবনার স্থানীয় এক নারী শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় প্রতারণার স্বীকার ভুক্তভোগীরা তার বাড়ির সামনে বিক্ষোভ করেন। পরবর্তীতে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই নারীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

পাবনা পৌর এলাকার পুলিশ লাইনস স্কুল এন্ড কলেজের প্রাথমিক শাখার শিক্ষক মোছা. সীমা আক্তারের (৪০) বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ উঠেছে। তিনি পৌর এলাকার আটুয়া হাউজ পাড়া মহল্লার মৃত হানিফুল ইসলামের স্ত্রী।

ভুক্তভোগীরা জানান, ইসলামী শরিয়া মোতাবেক গরুর খামার ও আরো নানা ধরনের হালাল উপর্জনের কথা বলে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন সীমা আক্তার। মানুষ তার কথায় বিশ্বাস করে লাভের আশায় অর্থ বিনিয়োগ করে। প্রথমদিকে বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করতে লাভের অর্থ প্রদান করা হয়। কিন্তু পরবর্তীতে টাকা আত্মসাৎ করে আত্মগোপন করেন। 

এই ঘটনার পরে স্কুল কতৃপক্ষ সীমা আক্তারকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। ঘটনার পরে ভুক্তভোগীরা পাবনা সদর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগের বিষয়ে সীমা আক্তার বলেন, আমার কোনো বৈধ ব্যবসা নেই। একজনের কাছ থেকে টাকা নিয়ে আরেকজনকে দিয়েছি। যারা টাকা দিয়েছে তাদের সুদে অনেক টাকা লাভ দিয়েছি। অমি কারো টাকা আত্মসাৎ করিনি। মানুষ না জেনে না বুঝে আমাকে কেন টাকা দিয়েছে, তাদের প্রশ্ন করুন। সম্প্রতি যারা আমাকে টাকা দিয়েছে, তাদের টাকার একটি হিসাব করেছি। সেখানে প্রায় তিন কোটি টাকার মতো হবে। সেই টাকা আমি দিয়ে দেবো। আর যারা সুদে লাভের টাকা নিয়েছে তাদেরটা দেবো না। আর আমাকে কেন স্কুল থেকে বহিষ্কার করেছে, সেটি স্কুল কর্তৃপক্ষ জানে। আমি ব্যক্তিগত কাজে বাইরে ছিলাম।

অভিযোগের বিষয়ে জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার স্নিগ্ধ আখতার বলেন, এই ঘটনার বিষয়ে আমরা অবগত হয়েছি। তার বিরুদ্ধে এই ধরনরে অভিযোগের কারণে স্কুল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। তার প্রতারণার বিষয়ে আমাদের কাছে লিখিত অভিযোগ নিয়ে এসছিল ভুক্তভোগীরা। আমরা তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছি। অনেকেই তার বিরুদ্ধে তথ্য প্রমাণ নিয়ে এসেছেন। তদন্ত শেষে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হবে।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //