পাহাড়ের অর্কিড রক্ষায় সাইথোয়াই মারমার উদ্যোগ

খাগড়াছড়িতে বিলুপ্ত ও বুনো জাতের অর্কিডের সংরক্ষণগার গড়ে তুলেছে অর্কিডপ্রেমী তরুণ সাইথোয়াই মারমা। পার্বত্য চট্টগ্রামের বিভিন্ন পাহাড় থেকে বিপন্ন প্রজাতির অকির্ডের জাত সংগ্রহ করেছেন তিনি।

কোনো বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে নয়, পাহাড়ের হারিয়ে যাওয়া অকির্ড রক্ষায় এমন উদ্যোগ নিয়েছেন তিনি। প্রায় ৫ বছর ধরে সংগ্রহ করা বিপন্ন ও দেশীয় প্রজাতির অর্কিড দিয়ে সংরক্ষণশালা গড়ে তুলেছেন তিনি ।

সরেজমিনে খাগড়াছড়ি জেলা শহরের রাজ্যমণি পাড়ার সাইথোয়াই মারমার বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, ‘তার সংরক্ষণশালায় ডেন্ডোবিয়াম লিন্ডলে, ডেন্ডোবিয়াম পিয়েরাড্ডি, সিলোজিনি, এনসেপ, ফক্সটেইল, ট্রান্সপারেন্স, একেম্পে রিগিদা, এরিয়া টেমেনটোসাসহ প্রায় ৫৫ প্রজাতির বিপন্ন অর্কিড রয়েছে।’

কোনো ধরনের পৃষ্ঠপোষকতা ছাড়াই পাহাড়ের বিভিন্ন বন ঘুরে তিনি এসব বিরল জাতের অর্কিড সংগ্রহ করেছেন। ফুলের টবের পরিবর্তে বাহারি রঙের অর্কিড শোভা পাচ্ছে তেঁতুল, আম, জারুল, সোনালু, কাঁঠাল গাছে। বন থেকে সংগ্রহ করা বেশিরভাগ অর্কিডকে প্রাকৃতিকভাবে সৃজন করা হয়েছে। 

সাইথোয়াই মারমা জানান, এক সময় পাহাড়ের বড় বড় গাছে অর্কিড দেখা গেলেও তা আজ বিলুপ্তপ্রায়। আমাদের দেশীয় অর্কিড যাতে হারিয়ে না যায়, সেই কারণে ৫ বছর ধরে পাহাড়ের বিভিন্ন থেকে নানা জাতের অর্কিড সংগ্রহ করছি।  

অর্কিড দেখতে আসা প্রলয় বাপ্পী ও আক্তার হোসেন জানান, আমাদের দেশে ১৪০-১৫০ প্রজাতির বন্য অর্কিড পাওয়া যায়। দুষ্প্রাপ্য অর্কিড রক্ষায় এটি খুবই প্রশংসনীয় উদ্যোগ। এমন উদ্যোগের কারণে পাহাড়ের হারিয়ে যাওয়া বুনো অর্কিড রক্ষায় অনেকে উৎসাহিত হবেন।

প্ল্যানটেশন ফর ন্যাচারের প্রতিষ্ঠাতা সবুজ চাকমা জানান, অর্কিড রক্ষায় সাইথোয়াই মারমার উদ্যোগ অনন্য উদ্যোগ।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //