সরকারি জমিতে চাইনিজ রেস্টুরেন্ট দিলেন আ.লীগ নেতা

দেশের বৃহত্তম সেচ প্রকল্প লালমনিরহাটের হাতিবান্ধা উপজেলার তিস্তা ব্যারেজের প্রবেশদ্বারে ফ্লাড বাইপাস সড়কের কোল ঘেঁষে পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) অধিগ্রহণকৃত প্রায় ৩০ শতাংশ জমি দখল করে আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামল নামে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা চাইনিজ রেস্টুরেন্ট ও কমিউনিটি সেন্টার নামক দুটি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন। 

সম্প্রতি ওই স্থাপনা আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেছেন লালমনিরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য মোতাহার হোসেন এমপি। আর আওয়ামী লীগ নেতা শ্যামল এমপির ব্যক্তিগত কর্মকর্তা ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মোতাহার হোসেন কলেজের অধ্যক্ষ। এছাড়াও তিনি হাতীবান্ধা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও গড্ডিমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান।

এদিকে পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠানটি উচ্ছেদের জন্য জেলা প্রশাসক বরাবর কয়েক দফা চিঠি দিয়েও কোনো প্রতিকার না পেয়ে হাতিবান্ধা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন পাউবো কর্তৃপক্ষ। 

থানায় দায়ের করা পাউবোর অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, তিস্তা ব্যারেজ এলাকার ৫নং চেক পোস্টের বিপরীত পাশে ফ্লাড বাইপাসের ১০০ গজ দূরে সরকারি জায়গা জোরপূর্বক দখল করে স্থাপনা নির্মাণের কাজ শুরু করেন আওয়ামী লীগ নেতা আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামল। গত বছর স্থাপনার কাজ শুরুর পরেই তাকে নির্মাণ কাজ বন্ধ করার জন্য মৌখিকভাবে বলা হলেও কাজ বন্ধ হয়নি। এরপর ওই বছরের ১১ ও ২৫ আগস্ট পাউবোর উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী (অতিঃ দায়িত্ব) মো. রাশেদীন অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নিতে পর-পর দুইটি নোটিশ দেন। এতেও কাজ না হলে অবশেষে হাতীবান্ধা থানায় গত বছরের ১ সেপ্টেম্বর লিখিত অভিযোগ করেন পাউবোর সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা আব্দুর রউফ।

এদিকে নীলফামারী ডালিয়া পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী আসফাউদদৌলা বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের অধিগ্রহণকৃত সম্পত্তিতে তিস্তা ব্যারাজ প্রকল্প এলাকায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য লালমনিরহাট জেলা প্রশাসককে গত বছরের ২ সেপ্টেম্বর একটি চিঠি দিয়ে অনুরোধ করেন। চিঠি হাতের পাওয়ার পরেও অজ্ঞাত কারণে জেলা প্রশাসক দপ্তর থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি। 

পানি উন্নয়ন বোর্ড আবারো গত ৬ জুন প্রতিষ্ঠানটি উচ্ছেদের জন্য লালমনিরহাট জেলা প্রশাসককে অনুরোধ করে  আরো একটি চিঠি দেন। কিন্তু রহস্যজনক কারণে জেলা প্রশাসন এবারো চুপ থাকেন। নির্মাণ কাজ শেষ করে ঘটা করে গত ৭ জুলাই প্রতিষ্ঠানটি উদ্বোধনের জন্য দিনক্ষণ ঠিক করা হয়। অবশেষে গত ৭ জুলাই বৈরালী ফাস্টফুড চাইনিজ রেস্টুরেন্ট এন্ড কমিউনিটি সেন্টার ও হোটেল বৈরালীর ব্যবসায়ী কার্যক্রম শুরু করে ওই আওয়ামীলীগ নেতা।

সম্প্রতি তিস্তা ব্যারাজ দোয়ানী এলাকার বাসিন্দারা জানান, দীর্ঘদিন ধরে পাউবোর জায়গায় অস্থায়ী ঘর নির্মাণ করে বসবাস করে আসছেন তারা। তবে তারা পাউবোর জায়গায় স্থায়ী অবকাঠামো নির্মাণ করেননি। কিন্তু আওয়ামী লীগ নেতা ও ইউপি চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামল জায়গা দখল করে ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় কয়েকজন আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনার মধ্যে তিস্তা ব্যারেজ একটি। সেই ব্যারেজের জমি অবৈধ দখল করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেন আওয়ামী লীগ নেতা শ্যামল। আবার সেই অবৈধ প্রতিষ্ঠান ঘটা করে উদ্বোধন করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও এলাকার সংসদ সদস্য মোতাহার হোসেন। এটা আমাদের জন্য লজ্জা। 

পাউবোর সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা আব্দুর রব জানান, তিস্তা ব্যারেজ ও ফ্লাড বাইপাস সড়কের আশেপাশে কোনো ব্যক্তি মালিকানাধীন জমি নেই। পাউবোর জায়গায় ভূমিহীনরা অস্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। কেউ স্থাপনা নির্মাণ করেননি। কিন্তু অবৈধভাবে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন ওই আওয়ামী লীগ নেতা।

নীলফামারী পানি উন্নয়ন বোর্ড (ডালিয়া) এর নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আসফাউদদৌলা হতাশা প্রকাশ করে বলেন, জেলা প্রশাসককে দুই দফায় চিঠি দিয়েও দখলদার আওয়ামী লীগ নেতার স্থাপনা উচ্ছেদ করতে পারছি না। এটি আমাদের জন্য বড়ই পরিতাপের বিষয়। 

তবে তিনি বলেন, দখলদাররা যতই ক্ষমতাশালী হোক না কেন এটি উচ্ছেদ করা হবেই।

লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক মো. আবু জাফর জানান, পানি উন্নয়ন বোর্ড থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য অনুরোধ করে চিঠি পাওয়া গেছে। দ্রুততম সময়ের মধ্যে এ বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //