গাজীপুরে হাসপাতালে স্ত্রীর মরদেহ রেখে পালালো স্বামী

গাজীপুরের শ্রীপুরে বিয়ের ৩ মাস যেতে না যেতেই স্ত্রীকে নির্যাতন ক‌রে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। মরদেহ হাসপাতালে রেখে পালিয়েছে ‌নিহতের স্বামী শাহীন আলম (২৫)। 

আজ শনিবার (২৩ জুলাই) বিকেলে উপজেলার কেওয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ মৃতদেটি ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় শাহিনকে আটক করতে না পরলেও তার মাকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত আলফিনা (১৮) নেত্রকোনা জেলার সদর থানার হাবিবপুর গ্রামের রহমত আলী মেয়ে। স্বামী শাহিন আলম একই থানার। 

পুলিশ ও পরিবার জানায়, গত ৩ মাস আগে পারিবারিকভাবে আলফিনা ও শাহিনের বিয়ে হয়। বিয়ের কয়েকদিন পর থেকেই তাদের দুইজনের মধ্যে বিভিন্ন বিষয় কথা কাটাকাটি দেখা যায়। জীবিকার তাগিদে কিছুদিন আগে স্বামী-স্ত্রী মিলে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার কেওয়া গ্রামে একটি বাসা ভাড়া নেন এবং দুইজনে পৃথক দুটি কারখানা চাকরি করতেন। আজ বিকেলে তাদের মধ্যে ঝগড়া হলে শাহিন আলম স্ত্রী আলফিনাকে শারীরিক নির্যাতন করে। নির্যাতনের এক পর্যায় তিনি জ্ঞান হারালে শাহিন চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যাওয়ার পথেই আলফিনার মৃত্যু হয়।

পরে স্ত্রীর মৃতদেহ হাসপাতালে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় শাহিন। কর্তব্যরত চিকিৎসকরা আলফিনার মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে শ্রীপুর মডেল থানা পুলিশ হাসপাতাল থেকে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

শ্রীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান জানান, মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পর থেকে আসামি শাহিন আলম পলাতক থাকলেও তার মাকে আটক করা হয়েছে। নিহতের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //