‘শেখ হাসিনা সরকার বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিত করেন’

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ২০০৯ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার গঠন করার পর বিচার বিভাগের স্বাধীনতার নিশ্চিত করাসহ বাস্তবমুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করেন। 

আজ রবিবার (২৪ জুলাই) বিকাল ৪টায় প্রধান অতিথি হিসেবে রাঙ্গামাটি জেলাপ্রশাসক কার্যালয়ের সাথে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে পার্বত্য জেলা রাঙ্গামাটিতে নবনির্মিত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (সিজেএম) আদালত ভবনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। 

এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইনমন্ত্রী বলেছেন, জিয়া, এরশাদ, খালেদার আমলের সবগুলো যোগ করলেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের সময়কালের উন্নয়নের সমান হবে না। এটি নিছক আমার মুখের কথা হয়, উন্নয়ন তথ্য ও পরিসংখ্যান তাই বলে। বিএনপি-জামাত ও তত্ত্বাবধায়ক সরকার ২০০১ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত সাড়ে সাত বছরে আইন ও বিচার বিভাগের জন্য ব্যয় করেছে মাত্র ১৬৫০ কোটি টাকা, এরমধ্যে উন্নয়ন ব্যয় ছিল মাত্র ২৫৩ কোটি টাকা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার আইন ও বিচার বিভাগের জন্য প্রতি বছরে গড়ে প্রায় ১৬৫০ কোটি টাকা ব্যয় করেছে আর উন্নয়ন বরাদ্দ দিয়েছে ৪৩৬ কোটি টাকা।

আইনমন্ত্রী আরো বলেন, আজ বিচার বিভাগের এজলাস সংকট অনেকটাই নিরসন হয়েছে, বিচারক সংকট কমে এসেছে। ৬৪ জেলার মধ্যে প্রথম পর্যায়ে ৪২টি জেলায় সিজিএম আদালত ভবন নির্মাণের কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে। আজ রাঙ্গামাটিসহ ৩৪টি জেলায় সিজিএম আদালতের নতুন ভবন উদ্বোধন করা হলো। আমরা আশাকরছি, আগামী বছরের মধ্যে বাকী জেলার কাজ সমাপ্ত হবে, এরমধ্যে খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান জেলাও আছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও রাঙামাটি আসনের সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার, রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অংসুইপ্রু চৌধুরী, ৬৪ জেলা সদরে সিজেএম আদালত ভবন নির্মাণ প্রকল্পের প্রধান সমন্বয়ক ও যুগ্ম সচিব বিকাশ কুমার সাহা, রাঙামাটি জেলা ও দায়রা জজ মো. নুরুল ইসলাম, রাঙামাটির চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ ফারুক, গণপূর্ত রাঙ্গামাটি সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী একিউএম শাহজালাল মজুমদার, রাঙ্গামাটি জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মোখতার আহম্মদ, সাধারণ সম্পাদক রাজীব চাকমা প্রমুখ। 


অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন আইন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. গোলাম সারওয়ার।

রাঙ্গামাটি গণপূর্ত বিভাগের বাস্তবায়নে নবনির্মিত পাঁচতলা বিশিষ্ট আদালত ভবনে ১৩টি এজলাস রয়েছে। যেখানে আদালতের বিচারকার্য অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া এই ভবনে কনফারেন্স রুম, জেলা লিগ্যাল এইড অফিস, বিচারকদের চেম্বার, খাস কামরা, মালখানা, ওয়েটিং রুম, ফিডিং রুমসহ অন্যান্য প্রশাসনিক কক্ষ রয়েছে। ভবনে দুইটি লিফট রয়েছে। আদালত ভবন নির্মাণে ২০ কোটি ৩২ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে। রাঙ্গামাটিসহ এ পর্যন্ত সারাদেশে মোট ৩৪টি নতুন সিজেএম আদালতের উদ্বোধন করা হলো।

নতুন আদালত ভবন উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে এজলাস সংকট নিরসন, দাপ্তরিক কাজের সুবিধাসহ পূর্ণাঙ্গ চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত প্রতিষ্ঠিত হওয়ায় বিচারপ্রার্থীদের ন্যায় বিচার পাওয়া আরো সহজতর হবে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্টরা।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //