ICT Division

খেয়ে না খেয়ে দিন কাটছে, তবুও দাবি আদায়ে অনড়

মৌলভীবাজারের ৯২টিসহ সারা দেশের ১৬৭টি চা বাগানের শ্রমিকরা দৈনিক তিনশ টাকা মজুরির দাবিতে গত ১৮ দিন ধরে কর্মবিরতিসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছেন। এ অবস্থায় তারা সাপ্তাহিক মজুরি ও রেশন পাচ্ছেন না। ফলে বেশির ভাগ চা-শ্রমিক ও পরিবারের সদস্যদের খেয়ে না খেয়ে দিন কাটাতে হচ্ছে। তারপরও নিজেদের দাবি আদায়ে অনড় তারা।

আজ শুক্রবার (২৬ আগস্ট) দুপুর পর্যন্ত মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার বিভিন্ন চা বাগান ঘুরে শ্রমিকদের তেমন একটা দেখা মেলেনি। বেশির ভাগ শ্রমিকই বাড়িতে রয়েছেন। তবে বেলা বাড়ার সাথে সাথে বিভিন্ন জায়গায় শ্রমিকদের একত্রিত হয়ে নিজেদের মধ্যে পরবর্তী করণীয় নিয়ে আলোচনা করতে দেখা যায়।

বিভিন্ন পঞ্চায়েত নেতৃবৃন্দের সাথে কথা বলে জানা যায়, তারা এখনো শ্রমিক ধর্মঘটে আছেন। প্রধানমন্ত্রীর সাথে বাগান মালিকদের বৈঠকের ফলাফল দেখে পরবর্তী করণীয় ঠিক করবেন।

স্থানীয় চা বাগানের নারী শ্রমিক সবিতা হাজরা বলেন, ১২০ টাকা মজুরি আর সামান্য রেশন দিয়ে খেয়ে না খেয়ে জীবন কাটে। ছেলে মেয়েদের পড়াশোনার খরচ বেড়েছে। বাজারে সব জিনিসের দাম বেড়েছে। এই অবস্থায় মজুরি বৃদ্ধির জন্য এত দিন ধরে আন্দোলন করছেন। এ কয় দিন আরো কষ্ট হয়েছে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মালিকদের কাছ থেকে আমাদের জন্য ভালো মজুরি এনে দেবেন। আমরা আর কারও ওপরে বিশ্বাস করি না। সবাই আমাদের নিয়ে খেলে। শুধু প্রধানমন্ত্রীকেই আমরা বিশ্বাস করি।

এদিকে বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক বিজয় হাজরা বলেন, আমরা সবাই প্রধানমন্ত্রীর মুখের দিকে তাকিয়ে রয়েছি। তিনি অবশ্যই সবকিছু বিবেচনা করে একটি মানসম্মত মজুরি নির্ধারণ করবেন। আমাদের শেষ ভরসাস্থল থেকে এই আশাটুকু আমরা সবাই করছি।

প্রসঙ্গত, তিনশ টাকা মজুরির দাবিতে গত ৯ আগস্ট থেকে চার দিন দুই ঘণ্টা করে কর্মবিরতি ও পরে ১৩ আগস্ট থেকে সারা দেশে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘট পালন করে আসছেন চা শ্রমিকরা।

প্রশাসনের সাথে আলোচনা করে বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটি ধর্মঘট প্রত্যাহার করলেও সেটা মানছেন না সাধারণ শ্রমিকেরা। আন্দোলন সফল করতে সড়ক, মহাসড়ক, রেলপথ অবরোধ করতে দেখা গেছে তাদের। দাবি আদায়ে গত কয়েক দিন ধরে বেশ উত্তাল ছিল চা বাগানগুলো।

এরই মধ্যে গতকাল বৃহস্পতিবার (২৫ আগস্ট) রাতে খবর আসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাল শনিবার চা বাগানের মালিকদের সাথে সভা করবেন। আগামীকাল শনিবার (২৭ আগস্ট) বিকেল ৪টায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে এ সভা হবে বলে নিশ্চিত করেছেন প্রধানমন্ত্রীর সহকারী প্রেস সচিব এম এম ইমরুল কায়েস।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //