লক্ষ্মীপুরে বাবার দেওয়া আগুনে প্রাণ গেল মেয়ের, আহত ২

লক্ষ্মীপুরে কামাল হোসেন (৪০) নামে এক বাবার দেওয়া আগুনে পুড়ে সাত বছরের মেয়ে আয়েশা আক্তার মারা গেছেন বলে জানা গেছে। এসময় কামালের দেওয়া আগুনে স্ত্রী সুমাইয়া আক্তার ও তিন বছর বয়সী ছেলে আবদুর রহমান দগ্ধ হন। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় আহত মা ও ছেলেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় বার্ন ইউনিট হাসপাতালে পাঠানো হয়। 

স্থানীয়দের দাবি, নেশার টাকা জোগাড় করতে না পেরে কামাল হোসেন এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটিয়েছে। এ ঘটনায় কামাল হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ।

আজ মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) ভোররাতে সদর উপজেলার বশিকপুর ইউনিয়নের পুরান চতইল্লার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

কামাল হোসেন লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার বশিকপুর ইউনিয়নের পুরান চতইল্লার বাড়ির আমিন উল্ল্যাহর ছেলে। পেশায় তিনি একজন অটোরিকশা চালক।

নিহত আয়েশা আক্তার কামাল হোসেনের মেয়ে, আহত সুমাইয়া আক্তার (৩৫) ও আবদুর রহমান (৩) কামালের স্ত্রী ও ছেলে।

স্থানীয় বাসিন্দা মাহফুজ আলম, সিএনজি চালক মানিক হোসেনসহ একাধিক ব্যক্তি জানান, কামাল মাদকসহ কয়েকবার পুলিশের হাতে আটক হয়েছে। মাদক সেবন ও ব্যবসা নিয়ে পারিবারিকভাবে স্ত্রীর সাথে বাকবিতণ্ডা প্রায়ই চলতো। ঘটনার সময় তারা চিৎকার শুনে ঘটনাস্থলে আগুন নেভাতে আসেন। পরে তাদের কাছে কামাল দাবি করেন, পেট্রোল দিয়ে তিনি নিজেই আগুন দিয়েছেন। এসময় পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার ও আহতদের উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় বার্ন ইউনিট হাসপাতালে পাঠান।

আহত কামালের স্ত্রী সুমাইয়ার স্বজনরা জানান, সুমাইয়া বশিকপুর ডিএসইউ কামিল মাদ্রাসার দপ্তরী পদে এ বছর চাকরি পান। কামাল নেশা ও মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত দাবি করে তারা বলেন, এ কারণেই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

চন্দ্রগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তৌহিদুর রহমান বলেন, পারিবারিক অশান্তির কারণে এ ঘটনা ঘটতে পারে। ঘাতক কামাল পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। তদন্ত করে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান ওসি।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2024 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //