রাজশাহীতে আজ থেকে পাকা আমের মৌসুম শুরু

রাজশাহীতে আমগাছ থেকে আম পাড়া শুরু হয়েছে। প্রশাসনের বেঁধে দেওয়া সময়সূচি অনুযায়ী গুটি জাতের পরিপক্ব আম পাড়তে শুরু করেছেন বাগান মালিকরা। সে হিসেবে রাজশাহীতে শুরু হলো পাকা আমের মৌসুম। যদিও আম ভালোভাবে পরিপক্ব না হওয়ায় সবখানে আম পাড়া শুরু হয়নি। এরপর গোপালভোগ জাতের আম পাড়া শুরু হবে আগামী ২৫ তারিখের পর থেকে। 

আজ বুধবার (১৫ মে) সকাল থেকেই রাজশাহী নগরী ও আশপাশের এলাকা ঘুরে আমচাষি ও ব্যবসায়ীরা আম পাড়ার প্রস্তুতি নিতে দেখা গেছে।

সকালে নগরীর জিন্না নগর ক্যান্টনমেন্ট এলাকায় গিয়ে দেখা যায় আম পাড়ছেন চাষিরা। তারা বলছেন, এখনো পুরোপুরি আম পরিপক্ব না হওয়ায় তারা গাছের যে আমগুলো পরিপক্ব হয়েছে শুধু সেগুলোই দেখে নামাচ্ছেন।

নগরীর কুখন্ডী ও বুধপাড়া এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, বাগানে অল্পসংখ্যক চাষি ও ব্যবসায়ী আম পাড়ছেন। তাদের দাবি, এখনো বাগানে গুটি জাতের আম সেভাবে পাকা শুরু হয়নি। তবে সময় ঘনিয়ে এসেছে, এখন গুটি জাতের সঙ্গে অন্য জাতের আমও পাকা শুরু হবে।

আম ব্যবসায়ী শাহাদাত হোসেন বলেন, জেলা প্রশাসকের বেঁধে দেওয়া সময় অনুযায়ী আজ থেকে গুটি আম নামানো শুরু হয়েছে। দুপুরে রাজশাহীর বানেশ্বর হাটে আম নিয়ে যাব বিক্রির জন্য। তবে প্রথম দিন খুব বেশি আম পাড়ার পরিকল্পনা নেই।

আব্দুল করিম নামে অন্য এক চাষি জানান, সকালে রাজশাহী নগরীর বুধপাড়ায় গুটি জাতের আম নামানো হচ্ছে। এর পরে তারা রাজশাহীর কোর্ট এলাকার একটি বাগানের তিনটি গাছের আম পাড়বেন। দামের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, যেহেতু আজকে প্রথম দিন। তাই আমের দাম ঠিকঠাক বলা যাচ্ছে না। আশা করছি ভালো দাম পাব। কারণ গত বছর থেকে এবার আম কম ধরেছে।

একাধিক চাষির কাছে জানা যায়, এবার গাছে আমের সংখ্যা অনেক কম। এজন্য ভালো দাম পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে যেহেতু গাছে আম কম, তাই আমাদের লোকসান হওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে। এবার আমের জন্য অফ ইয়ার। এরপরও আমের মুকুল ভালোই এসেছিলো এই অঞ্চলে। কিন্তু ফাল্গুনে একটানা বৃষ্টি হবার ফলে মুকুল নষ্ট হয়ে যায়। তবে দেরিতে যে মুকুলগুলো এসেছিলো এখন সেগুলোর আম টিকে আছে। মার্কেটে এবার আমদানি কম হবে যে কারণে আমের দাম হবে।


এর আগে গত বুধবার (১২ মে) রাজশাহী জেলা প্রশাসনের আয়োজনে আম সংগ্রহ, পরিবহন, বিপণন ও বাজারজাত মনিটরিং সংক্রান্ত সভায় আমপাড়া বিষয়ে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভায় জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, কৃষি বিভাগসহ আম সংশ্লিষ্ট বিভাগের ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, এ বছর গোপালভোগ বা রানিপসন্দ ২৫ মে, লক্ষ্মণভোগ বা লখনা ৩০ মে এবং একই তারিখে হিমসাগর বা ক্ষীরশাপাত গাছ থেকে নামানো যাবে। এছাড়া ১০ জুন থেকে ল্যাংড়া ও ব্যানানা আম; ১৫ জুন আম্রপালি এবং একই তারিখে ফজলি, ৫ জুলাই বারি-৪ আম, ১০ জুলাই আশ্বিনা, ১৫ জুলাই গৌড়মতি ও ২০ আগস্ট থেকে ইলামতি আম নামানো যাবে। এছাড়া কাটিমন ও বারি-১১ আম সারা বছর সংগ্রহ করা যাবে।

রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক (উদ্যান) মোছা. সাবিনা বেগম বলেন, রাজশাহীতে গুটি জাতের আম পাড়া শুরু হয়েছে। পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন জাতের আম পাড়া হবে।

উল্লেখ্য, ২০২৩-২৪ অর্থবছরে রাজশাহী জেলায় আমের সম্ভাব্য উৎপাদন ২ লাখ ৬০ হাজার ৩১৫ টন। এ বছর আমের আবাদ হয়েছে ১৯ হাজার ৬০২ হেক্টর জমিতে। যার গড় ফলন ধরা হয়েছে ১৩ দশমিক ২৮ টন।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2024 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //