কোরবানির বর্জ্য দ্রুত অপসারণে করনীয়

কয়েকজন যুবক ব্যক্তিগত উদ্যেগে কোরবানির বর্জ্য অপসারণ করছেন।

কয়েকজন যুবক ব্যক্তিগত উদ্যেগে কোরবানির বর্জ্য অপসারণ করছেন।

আগামীকাল (২১ জুলাই) পবিত্র ঈদুল আযহা। এটি মুসলমানদের পবিত্র ধর্মীয় উৎসব। পবিত্র এই দিনে আল্লাহকে খুশি করার জন্য সামর্থ্যবান সকল মুসলিম তার প্রিয় বস্তু হিসেবে ছাগল, গরু, মহিষ, ভেড়া, উট কিংবা দুম্বা কোরবানি করে থাকেন।

বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে ঈদ উপলক্ষে তাই আগামীকাল বুধবার পশু কোরবানি করা হবে।

প্রতিবছর পশু কোরবানির স্থানে এসব বর্জ্য জমে থেকে দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়তে দেখা যায়। সচেতনতা ও ব্যক্তিগত উদ্যেগ গ্রহণের মানসিকতার অভাবেই পশু কোরবানি করার পর কোরবানির স্থানের বর্জ্য সরিয়ে ফেলা হয় না। যা পরবর্তীতে দুর্গন্ধের সৃষ্টি করে। এমনও হয় পশু কোরবানি করার পর বর্জ্য রেখে চলে যায় যা আসলে অনুচিত। 

এমতাবস্থায়, আমাদের করণীয় সিটি কর্পোরেশন কিংবা পৌরসভা এলাকার নির্দিষ্ট বেঁধে দেয়া স্থানে কোরবানি করা।কোরবানি করার পর তা সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষকে অবহিত করা। এছাড়া বেঁধে দেয়া স্থানের বাইরে কোরবানি করলে কোরবানির বর্জ্য দ্রুত স্ব-উদ্যেগে অপসারণ করা। কোরবানির বর্জ্য যত্রতত্র নিক্ষেপ না করে সঠিক স্থানে ফেলা অথবা পুঁতে ফেলা। নগরীর বর্জ্য নির্দিষ্ট স্থানে দেয়া ডাস্টবিনে ডাম্পিং করা। এতে করে নগরের চলাচলে বিঘ্ন হবে না। আর যদি তা অনুসরণ করা না হয় তাহলে বর্জ্য থেকে মারাত্মক দুর্গন্ধ ও জীবাণু ছড়াবে। সুতরাং আমরা  কর্তৃপক্ষের পাশাপাশি ব্যক্তিগত উদ্যেগে কোরবানির বর্জ্য দ্রুত অপসারণ করে প্রকৃতিকে নির্মল রাখব।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh