রবীন্দ্রনাথের নাম রাখা ফুলগুলো

প্রকৃতিপ্রেমী রবীন্দ্রনাথের সঙ্গে ফুল ও গাছপালার এক মধুর অন্তর্নিহিত সম্পর্ক ছিল। রবীন্দ্রনাথের বৃক্ষপ্রীতি ছিল ছেলেবেলা থেকেই। বৃক্ষপ্রেমী রবীন্দ্রনাথের গানে, কবিতায় ছড়িয়ে আছে অসংখ্য উদ্ভিদ আর ফুলের নাম। শুধু কাব্যেই উল্লেখ রয়েছে ১০৮টি গাছ ও ফুলের নাম। এর মধ্যে বেশ কিছু বিদেশি ফুলের বাংলা নাম তিনি রেখেছিলেন। অগ্নিশিখা, তারাঝরা, নীলমণিলতা, বনপুলক, বাসন্তী, মধুমঞ্জরি, বাগানবিলাস, হিমঝুরি, অলকানন্দা এগুলো তারই দেওয়া নাম।

আমাদের দেশে প্রায়ই মধুমঞ্জরি ফুলের দেখা মেলে বাড়ির প্রবেশপথে। লোকে ভুল করে একে মাধবীলতা বলে থাকে। তবে মাধবীলতা প্রকৃতই আলাদা একটি ফুল। শান্তিনিকেতনে এই ফুলগাছ রোপণের সিদ্ধান্ত নিলেন রবীন্দ্রনাথ। যা কোনোদিন পূজায় লাগেনি তাকে মন্দিরের দেয়ালের বন্দিত্ব থেকে মুক্তি দিলেন। তিনি নাম রাখলেন মধুমঞ্জরি। বৈজ্ঞানিক নাম Quisqualis indica. সাধারণত সাদা ও লাল রঙের ফুল ফোটে। এটি ঈষৎ সুগন্ধময়। লতাজাতীয় উদ্ভিদ। 

একবার রবীন্দ্রবন্ধু পিয়র্সন বিশ্বভারতীর উত্তরায়ণের বাড়িতে অপরিচিত লতা পুঁতেছিলেন। একসময় নীল ফুলে ভরে উঠেছিল গাছটি। রবীন্দ্রনাথ উষ্ণমণ্ডলীয় আমেরিকার এই ফুলের নাম দিলেন নীলমণিলতা। এর বৈজ্ঞানিক নাম Petrea volubilis. নাম পাকাপোক্ত করে রবীন্দ্রনাথ লিখলেন কবিতা- ‘নীলিমা বন্যায় শূন্যে উচ্ছলে অনন্ত ব্যাকুলতা/তারি ধারা পুষ্পপাত্রে ভরি নিল নীলমণিলতা’।

একদা কোনো এক বাড়ির সামনে রবীন্দ্রনাথ প্রথম বোগেনভেলিয়া ফুল দেখেছিলেন। গোলাপি, লাল, হলুদ এমন নানা রঙ দেখে দারুণ আকর্ষিত হন কবি। ব্রাজিলে আদিনিবাস এই ফুলের বৈজ্ঞানিক নামের সঙ্গে সুন্দর মিল রেখে তিনি এর নামকরণ করলেন বাগানবিলাস। Bougainvillea spectabilis. বৈজ্ঞানিক নামের এই ফুল আজ বাগানবিলাস নামেই পরিচিত। শীত, বসন্ত এমনকি সারাবছরই ফুল দেখা যায় এই গাছে।

আবার শান্তিনিকেতনে হিমঝুরি রোপণ করেছিলেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। এটি সুউচ্চ বৃক্ষ। সাদা ও নলাকৃতির এই ফুল ভোরেই ঝরে পড়ে। মিয়ানমার, থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম, কম্বোডিয়া ইত্যাদি অঞ্চলের এই উদ্ভিদটির ‘হিমঝুরি’ নাম দিয়েছিলেন রবীন্দ্রনাথ। এর বৈজ্ঞানিক নাম Millingtonia hortensis. আকাশনিম নামেও এটি পরিচিত।

জয় গোস্বামীর কবিতার সূত্র ধরে অলকানন্দা নামটি পরিচিতি পেয়েছে কাব্যপ্রেমী মানুষের কাছে। অথচ অ্যালামেন্ডা নামের সঙ্গে মিল রেখে রবীন্দ্রনাথ এর নামকরণ করেছিলেন অলকানন্দা। এটি দেখতে মাইক আকৃতির। হলুদ রঙের ফুলই বেশি দেখতে পাওয়া যায়, তবে এটি হালকা বেগুনি রঙেরও হয়ে থাকে। ব্রাজিলের এই ফুলকে রবীন্দ্রনাথ আপন নামে অলঙ্কৃত করেছেন। এর বৈজ্ঞানিক নাম Allamanda cathartica.


লেখা ও ছবি : সঞ্জয় সরকার

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //