১৩ ডিগ্রির নিচে নামল যে ৮ জেলার তাপমাত্রা

৮ জেলার তাপমাত্রা নেমেছে ১৩ ডিগ্রির নিচে। আরও কিছু জেলার তাপমাত্রা কমতে পারে কয়েক দিনের মধ্যেই। এখন ঢাকাসহ বেশ কিছু এলাকায় শৈত্যপ্রবাহ না বইলেও, ঠান্ডা বাতাস বইছে প্রায় সারা দিনই। এই কনকনে বাতাস ঠান্ডার অনুভূতি বেশ বাড়িয়ে দিয়েছে।

চলতি মাসের শেষ দিকে একটি শৈত্যপ্রবাহ হতে পারে বলে শঙ্কার কথা জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

তারা জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল রাজশাহীতে ১১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ ছাড়া ১৩ ডিগ্রির নিচে থাকা অঞ্চলগুলোর মধ্যে আছে, ঈশ্বরদী ও শ্রীমঙ্গলে ১১ দশমিক ৫, তেঁতুলিয়ায় ১১ দশমিক ৬, চুয়াডাঙ্গায় ১২, বদলগাছিতে ১২ দশমিক ২, যশোর ও রাজারহাটে ১২ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে অবস্থান করছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে, যার বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে।

আগামী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারা দেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত সারা দেশে মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে এবং এটি কোথাও কোথাও দুপুর পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। ঘন কুয়াশার কারণে মধ্যরাত থেকে দুপুর পর্যন্ত বিমান চলাচল, অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন এবং সড়ক যোগাযোগে সাময়িকভাবে বিঘ্ন ঘটতে পারে। সারা দেশে রাত ও দিনের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে। কুয়াশার কারণে সারা দেশে দিনে ঠান্ডা পরিস্থিতি বিরাজ করতে পারে।

এদিকে দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাসে বলা হয়, দেশে স্বাভাবিক অপেক্ষা কিছুটা কম বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা আছে। দেশে এক থেকে দুবার মৃদু (৮ থেকে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস) থেকে মাঝারি (৬ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস) ধরনের শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। দিন ও রাতের তাপমাত্রা স্বাভাবিক অপেক্ষা বেশি থাকতে পারে।

চলতি মাসে দেশের উত্তর, পশ্চিমাঞ্চল, উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে এবং নদ-নদী অববাহিকায় মাঝারি বা ঘন কুয়াশা এবং অন্যত্র হালকা ও মাঝারি কুয়াশা পড়তে পারে। ঘন কুয়াশা পরিস্থিতি কোথাও কোথাও দুপুর পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2024 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //