প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্য ১৭ এপ্রিল

ডিউক অব এডিনবরা প্রিন্স ফিলিপ

ডিউক অব এডিনবরা প্রিন্স ফিলিপ

ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের স্বামী ডিউক অব এডিনবরা প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্য আগামী ১৭ এপ্রিল উইন্ডসরে অনুষ্ঠিত হবে বলে বাকিংহাম প্রাসাদ থেকে ঘোষণা করা হয়েছে।

বাকিংহাম প্রাসাদের মুখপাত্র বলেছেন, ডিউকের শেষকৃত্য রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে হবে না। সেটি হবে রাজপরিবারের আনুষ্ঠানিক রীতি অনুযায়ী রাজকীয় অন্ত্যেষ্টি। ডিউকের শেষকৃত্য হবে তার শেষ ইচ্ছা মেনে।

প্রাসাদ থেকে জানানো হয়েছে, আগামী শনিবার ব্রিটেনের স্থানীয় সময় বিকাল ৩টায় তার শেষকৃত্য হবে। এই অনুষ্ঠানে তার বর্ণময় দীর্ঘ জীবনের নানা দিক প্রতিফলিত হবে। মহামারির নিয়মবিধি মেনে প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্যানুষ্ঠান সীমিত আকারে করা হবে বলে জানানো হয়েছে। রানি এই অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা অনুমোদন করেছেন।

উইন্ডসর কাসেলের নিজস্ব চ্যাপেল সেন্ট জর্জেস চ্যাপেলে ডিউক অব এডিনবরার মরদেহ শায়িত রাখা হয়েছে। প্রাসাদ থেকে জানানো হয়েছে, তার কফিন ঢাকা আছে তার ব্যক্তিগত পরিচিতি বহনকারী কাপড়ে ও তার ওপর সাজানো রয়েছে পুষ্পস্তবক। তার মরদেহ জনসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শায়িত রাখা হবে না।

শনিবার তার কফিন উইন্ডসর কাসেলের প্রবেশদ্বার থেকে গাড়িতে তোলা হবে। ডিউক নিজেই এই যাত্রার পরিকল্পনার সাথে যুক্ত ছিলেন।

প্রাসাদ থেকে বলা হয়েছে, প্রিন্স অব ওয়েলস প্রিন্স চালর্সসহ রাজপরিবারের সদস্যরা ডিউক অফ এডিনবরার কফিনের পেছনে পায়ে হেঁটে চ্যাপেলে যাবেন। তবে রানি যাবেন আলাদাভাবে।

এদিকে ব্রিটেনে গতকাল শনিবার (১০ এপ্রিল) ৪১ বার তোপধ্বনি করে ও গির্জায় ঘন্টা বাজিয়ে প্রিন্স ফিলিপের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়েছে। ব্রিটেনের বিভিন্ন জায়গা থেকে, সেইসাথে স্পেনের জিব্রলটার ও সমুদ্রে রণতরী থেকে সমন্বিত ও বর্ণাঢ্য তোপধ্বনি করা হয়েছে।

ব্রিটিশ সময় দুপুর ১২টা থেকে লন্ডন, স্কটল্যান্ডের এডিনবারা, ওয়েলসের কার্ডিফ ও আয়ার‌ল্যান্ডের বেলফাস্ট থেকে প্রতি মিনিটে এক রাউন্ড করে ৪১ বার তোপধ্বনি করা হয়।

সমুদ্রে রয়াল নেভির জাহাজগুলো থেকেও ডিউকের স্মরণে তোপধ্বনি করা হয়। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় প্রিন্স নেভাল অফিসার হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন ও পরে তিনি লর্ড হাই অ্যাডমিরাল পদে আসীন ছিলেন।

এই তোপধ্বনির অনুষ্ঠান টিভি ও অনলাইনে লাইভ সম্প্রচার করা হয়েছে। করোনা মহামারির কারণে মানুষজনকে ঘরে থেকে এই অনুষ্ঠান দেখতে অনুরোধ করা হয়েছিল।

এধরনের সম্মানসূচক তোপধ্বনি এর আগে করা হয়েছিল ১৯০১ সালে রানি ভিক্টোরিয়ার সম্মানে ও ১৯৬৫ সালে সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী উইনস্টন চার্চিলের মৃত্যুর পর তার স্মরণে।

রানি এলিজাবেথের ৭৩ বছরের জীবনসঙ্গী প্রিন্স ফিলিপ ৯৯ বছর বয়সে শুক্রবার উইন্ডসর প্রাসাদে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। ব্রিটিশ রাজ পরিবারের ইতিহাসে কোনো রাজা বা রানির এত দীর্ঘসময়ের জীবনসঙ্গী আর কেউ ছিলেন না।

বাকিংহাম রাজপ্রাসাদের পতাকা শুক্রবার থেকেই অর্ধনমিত রাখা হয়েছে। ডিউকের শেষকৃত্য হওয়ার পরদিন সকাল ৮টা পর্যন্ত সব সরকারি ভবনগুলোতে পতাকা অর্ধনমিত রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী আটদিনের রাষ্ট্রীয় শোক পালনের সুপারিশ করেছেন যা রানি অনুমোদন করেছেন বলে বাকিংহাম প্রাসাদ থেকে জানানো হয়েছে। আটদিনের রাষ্ট্রীয় শোক চলবে ১৭ এপ্রিল ডিউক অব এডিনবরার শেষকৃত্য সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত। -বিবিসি

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh