ICT Division

উরুগুয়ে-দক্ষিণ কোরিয়া জমজমাট লড়াই

প্রথম বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন উরুগুয়ে আগের সেই অবস্থানে নেই। সে হিসেবে অনেক উন্নতি করেছে আজকের ম্যাচের প্রতিপক্ষ দক্ষিণ কোরিয়া। দুই বারের বিজয়ী উরুগুয়ের সামনে আজ এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামে এশিয়ার তাইগেউক ওয়ারিয়র্স খ্যাত দক্ষিণ কোরিয়া। 

গত বছরের শেষ দিকে দিয়েগো আলোনসো অস্কার তাবারেজের কাছ থেকে দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে লা সেলেস্তে দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছেন। গ্রুপ এইচ ‘এ’ তাদের অপর দুই প্রতিপক্ষ পর্তুগাল ও ঘানা। ১৫ বছর চাকরি করার পর উরুগুয়ের বস হিসেবে তাবারেজকে বরখাস্ত করা তাদের প্রস্তুতিকে বিশৃঙ্খলার মধ্যে ফেলে দিয়েছে, যদিও তারা মাঠে ইতিবাচক ফলাফল পাচ্ছে। ব্রাজিলের কাছে অপমানজনক ৪-১ ব্যবধানে হার ও বলিভিয়ার কঠিন উচ্চতায় ৩-০ ব্যবধানে পরাজয়সহ টাবারেজ চারটি পরাজয়ের পর ম্যানেজার পদ থেকে বরখাস্ত হন।

এরপর নতুন বছরে বাছাই পর্বে চারটি ম্যাচ বাকি থাকায় আলোনসো দায়িত্বে আসার পর চারটিই জিতেছে। চিলি ও প্যারাগুয়ের বিপক্ষে অ্যাওয়ে জয়গুলো হাইলাইট ছিল। দলের অন্যতম তারকা ফুটবলার লুইস সুয়ারেজ এখনো জাতীয় দলে সব কিছুর কেন্দ্রে রয়েছেন। দলের আক্রমণভাগে সুয়ারেজ, ডারউইন নুনেজ, এডিনসন কাভানি ও ম্যাক্সি গোমেজ সবাই এই বছরের গোলের মধ্যে রয়েছেন। উরুগুয়ের প্রতি খেলায় গড়ে দুটি গোল। তারা এবার বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লক্ষ্যেই রয়েছে। বর্তমান ফর্মে তাদের ছাড় দেয়া যাবে না। এদিকে দক্ষিণ কোরিয়া একজন আন্ডার-ফায়ার ম্যানেজার এবং একটি স্কোয়াড নিয়ে টুর্নামেন্টে এসেছে, যা কাতারের কাছে বিল্ড আপে ডুবে গেছে। ফুটবল বিশ্বকাপে শিরোপা জেতার সোনালি অতীত আছে উরুগুয়ের। কিন্তু ১৯৫০ সালে দ্বিতীয়বার জেতার পর আর ফাইনালে খেলতে পারেনি দুইবারের চ্যাম্পিয়নরা। তবে দীর্ঘদিনের আক্ষেপ ঘোচানোর সংকল্প নিয়ে আজ কাতার মিশন শুরু করছে দিয়েগো আলোনসোর দল।

বাছাইয়ে টানা হারে বিশ্বকাপে আসাটাই অনিশ্চিত হয়ে পড়েছিল উরুগুয়ের। কিন্তু অস্কার তাবারেজের চেয়ারে বসে ভাগ্যের চাকাও ঘুরিয়ে দেন আলোনসো। টানা চার ম্যাচ জিতে তারা টিকিট কাটে কাতারের। তার দলটিও দুর্দান্ত। আক্রমণভাগে আছেন লুই সুয়ারেস, ম্যাক্সি গোমেজ, এদিনসন কাভানির মতো তারকা। ফার্নান্দো মুসলেরা, দিয়েগো গোদিন, হোসে রোদ্রিগেজদের নিয়ে গড়া উরুগুয়ের রক্ষণও বেশ জমাট। আলোনসোও তাই দারুণ আশাবাদী, ‘দলটি সত্যিই ভালো করছে। ওদের নিয়ে প্রত্যাশাও অনেক। এখানে আসতে পেরে খুব ভালো লাগছে। আমরা খুবই উদ্দীপ্ত’ কোরিয়ার বিপক্ষে এর আগে আটবার খেলে ছয়বারই জয়ের হাসি হেসেছে উরুগুয়ে। সর্বশেষ ২০১০ সালের বিশ্বকাপে শেষ ষোলোর লড়াইয়েও তারা জিতেছিল ২-১ গোলে। পাউলো বেন্তোর দলের সামনে তাই এবার প্রতিশোধের হাতছানি। কিন্তু বিশ্বকাপে ইউরোপের বাইরের দেশগুলোর বিপক্ষে তাদের অতীত বড্ড বিবর্ণ, জয় মোটে একটি।

যদিও দলের সেরা তারকা সন হিউং মিনের চোখের নিচের হাড়ে অস্ত্রোপচারজনিত কারণে তাদের প্রস্তুতিও প্রত্যাশিত হয়নি। তবে উরুগুয়ের বিপক্ষে ম্যাচের আগে সনকে নিয়ে স্বস্তির খবরই দিয়েছেন কোচ বেন্তো, ‘সন খেলতে পারে এবং সে মাঠে নামার জন্য তৈরিও।’  কিন্তু মুখোশ পরে সন নিজের সাবলীল খেলাটা খেলতে পারবেন তো! কোচ বেন্তো এ ব্যাপারে আশ্বস্ত করেছেন। আজকে তাই জমজমাট লড়াইয়ের অপেক্ষা।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //