মিয়ানমারের প্রতিনিধি দলের বাংলাদেশ সফর অনিশ্চিত

চলতি মে মাসে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন ইস্যুতে মিয়ানমারের একটি প্রতিনিধি দল বাংলাদেশ সফরের কথা ছিল। তবে ঘূর্ণিঝড় মোকার কারণে তা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। 

আজ বৃহস্পতিবার (১৮ মে) দুপুরে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাপ্তাহিক সংবাদ ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জনকূটনীতি অনুবিভাগের মহাপরিচালক ও মুখপাত্র সেহেলী সাবরীন।

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রসঙ্গে সেহেলী সাবরীন বলেন, গত ৫ মে রোহিঙ্গাসহ একটি প্রতিনিধি দল মিয়ানমারে রাখাইন রাজ্যের মংডু সফর করেন। সরেজমিন রাখাইন সফর শেষে ফিরে এসে রোহিঙ্গারা যে সকল অস্পষ্ট বিষয় উল্লেখ করেছেন তা ইতোমধ্যে মিয়ানমারকে জানানো হয়েছে। 

মুখপাত্র বলেন, মিয়ানমারের প্রতিনিধি দলের মে মাসে বাংলাদেশ সফরের কথা ছিল। তবে ঘূর্ণিঝড় মোকার কারণে তা পিছিয়ে গেছে। মোকার কারণে রাখাইন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কাজেই এ পরিস্থিতিতে সফরটি পরবর্তী সময়ে হবে। এখনও তারিখ নির্ধারিত হয়নি।

এদিকে কূটনীতিকদের বাড়তি নিরাপত্তা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত থেকে সরকার সরে আসবে কি না– জানতে চাইলে মুখপাত্র বলেন, কূটনীতিকদের সরকার যে নিরাপত্তা দিত, তা বহাল রয়েছে। ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণের জন্য বাড়তি যে এসকর্ট ছিল, শুধুমাত্র সেটি প্রত্যাহার করা হয়েছে। সরকার এও বলেছে– এ সেবা চাইলে দূতাবাসগুলো অর্থের বিনিময়ে আনসার ব্যাটালিয়ন থেকে নিতে পারবে।

দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের ক্ষেত্রে সরকারে এ সিদ্ধান্ত কোনো সমস্যা হবে না জানিয়ে সেহেলী সাবরীন বলেন, একটি বিষয়ের ওপর দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক নির্ভর করে না। অর্থনৈতিক, বাণিজ্যিক, প্রবাসীদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট অনেক বিষয় থাকে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কে। সামান্য বিষয়ে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কে প্রভাব পড়বে না।

কূটনীতিকদের বাড়তি নিরাপত্তা কয়টি দেশকে, কবে থেকে এবং কী কারণে দেওয়া হতো– জানতে চাইলে মুখপাত্র বলেন, এ বিষয়টি নিয়ে এ মুহূর্তে তথ্য নেই, জেনে জানানো হবে। আর বাংলাদেশ সরকারের অবস্থান সকল দূতাবাসকে কূটনৈতিক পত্রের মাধ্যমে আমরা জানাবো। বাকি অগ্রগতি পরবর্তী সময়ে জানানো হবে।

এখন পর্যন্ত কোনো দেশ বাড়তি নিরাপত্তা চেয়েছে কি না– জানতে চাইলে তিনি বলেন, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দূতাবাসগুলোকে জানালে, তখন তারা তাদের চাহিদা মতো নিরাপত্তা চাইবে। তখন আমরা এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেব।

বিদেশি কূটনীতিকদের আনসার বাহিনী কীভাবে নিরাপত্তা দেবে, সেটি চূড়ান্ত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বা আগামী রোববারের মধ্যে নোট ভার্বাল বা কূটনৈতিক পত্রের মাধ্যমে দূতাবাসগুলোকে বিষয়টি জানানোর কথা গত বুধবার বলেছিলেন পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2023 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //