বিশ্বে একদিনে ঝরল আরো ১৫ হাজার প্রাণ

করোনা মহামারির ভয়াবহভাবে বেড়েই চলেছে। সাথে বাড়ছে ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন প্রায় ১৫ হাজার মানুষ। একই সময়ে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৮ লাখ ৩০ হাজার।

বুধবার (২৮ এপ্রিল) সকালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস এ তথ্য জানায়। 

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১৪ হাজার ৮২১ জন। এতে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৩১ লাখ ৪৮ হাজার ১৪৫ জনে।

এছাড়া, একই সময়ের মধ্যে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৮ লাখ ৩০ হাজার ৮২২ জন। এতে ভাইরাসে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ কোটি ৯৩ লাখ ১৯ হাজার ১৬৭ জনে।


করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৩ কোটি ২৯ লাখ ২৭ হাজার ৯১ জন করোনায় আক্রান্ত এবং ৫ লাখ ৮৭ হাজার ৩৮৪ জন মারা গেছেন। লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় ও মৃত্যুর সংখ্যায় তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগী এক কোটি ৪৪ লাখ ৪৬ হাজার ৫৪১ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৯৫ হাজার ৩২৪ জনের।

অন্যদিকে করোনায় আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যার তালিকায় দেশটির অবস্থান চতুর্থ। দেশটিতে মোট আক্রান্ত এক কোটি ৭৯ লাখ ৮৮ হাজার ৬৩৭ জন এবং মারা গেছেন ২ লাখ ১ হাজার ১৬৫ জন।

এছাড়া এখন পর্যন্ত ফ্রান্সে ৫৫ লাখ ৩৪ হাজার ৩১৩ জন, রাশিয়ায় ৪৭ লাখ ৭৯ হাজার ৪২৫ জন, যুক্তরাজ্যে ৪৪ লাখ ৯ হাজার ৬৩১ জন, ইতালি ৩৯ লাখ ৮১ হাজার ৮১২ জন, তুরস্কে ৪৭ লাখ ১০ হাজার ৫৮২ জন, স্পেনে ৩৪ লাখ ৯৬ হাজার ১৩৪ জন, জার্মানি ৩৩ লাখ ২৬ হাজার ৭৭৮ জন এবং মেক্সিকোতে ২৩ লাখ ২৯ হাজার ৫৩৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

অন্যদিকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ফ্রান্সে এক লাখ ৩ হাজার ৬০৩ জন, রাশিয়ায় এক লাখ ৮ হাজার ৯৮০ জন, যুক্তরাজ্যে এক লাখ ২৭ হাজার ৪৫১ জন, ইতালিতে এক লাখ ১৯ হাজার ৯১২ জন, তুরস্কে ৩৯ হাজার ৫৭ জন, স্পেনে ৭৭ হাজার ৮৫৫ জন, জার্মানিতে ৮২ হাজার ৬৯৮ জন এবং মেক্সিকোতে ২ লাখ ১৫ হাজার ১১৩ জন মারা গেছেন।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর গত বছরের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে ‘বৈশ্বিক মহামারি’ হিসেবে ঘোষণা করে। এর আগে একই বছরের ২০ জানুয়ারি বিশ্বজুড়ে জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করে সংস্থাটি। বিশ্ব এখন করোনা মহামারির দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলা করছে।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //