মা-মেয়েকে ন্যাড়া করা তুফানের জামিন কেন নয়: হাইকোর্ট

বগুড়ায় কিশোরীকে ধর্ষণের পর তাকে ও তার মাকে নির্যাতনের পর মাথা ন্যাড়া করে দেয়ার ঘটনায় গ্রেফতার বহিষ্কৃত শ্রমিক লীগ নেতা তুফান সরকারের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলায় তাকে কেন জামিন দেয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

বুধবার (৯ সেপ্টেম্ববর) বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রুল জারি করেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সারওয়ার হোসেন (বাপ্পী), আর দুদকের পক্ষে আইনজীবী ব্যারিস্টার সাজ্জাদ হোসেন শুনানিতে অংশ নেন।

এর আগে গত বছরের ২৮ অক্টোবর তার আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করেছিলেন। তখন রাষ্ট্রপক্ষ জানিয়েছিলো শ্রমিক লীগ নেতা তুফান সরকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জন ও সম্পদের তথ্য গোপনে অভিযোগে দায়ের করা মামলায় হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেন। আসামি তুফান সরকারের আয়ের কোনো উৎস ছিল না। তিনি আয়কর রিটার্নে এক কোটি ৫৯ লাখ ৫৮ হাজার ৮৮৫ টাকা দেখান। দুদকের নোটিশে সম্পদের সঠিক হিসাব দেননি তিনি।

এ কারণে দুদকের সহকারী পরিচালক মো. আমিনুল ইসলাম ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর বগুড়া সদর থানার মামলা করেন। এ আসামি ধর্ষণ মামলায় গ্রেফতার হয়ে ২০১৭ সালের ২৯ জুলাই থেকে জেল-হাজতে আছেন।

২০১৭ সালের ২৮ জুলাই নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে ওই মেয়ের মায়ের করা মামলায় বলা হয়, ভালো কলেজে ভর্তি করবে বলে তুফান মোবাইলে যোগাযোগ করে। পরে মেয়ের ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ২০১৭ সালের ১৭ জুলাই বগুড়ায় নিজের বাড়িতে তার মেয়েকে ধর্ষণ করে তুফান। তুফানের স্ত্রী বিষয়টি জেনে ওই ঘটনার জের ধরে ওই বছরের ২৮ জুলাই তার এবং তার মেয়ের মাথা ন্যাড়া করে দেন। এমনকি বেধড়ক মারধরও করেন। পরে এ মামলায় দায়ের করলে পুলিশ ১১ জনকে গ্রেফতার করে।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh