‘অনেক নিউজ করেছেন, আপনাকে মাটিতে পুঁতে ফেলব’

রোজিনা ইসলামের ছোট বোন সাবিনা ইয়াসমিন জুলি।

রোজিনা ইসলামের ছোট বোন সাবিনা ইয়াসমিন জুলি।

আপনি অনেক নিউজ করেছেন, অনেক লেখালেখি করেছেন, আপনাকে এখন মাটিতে পুঁতে ফেলব- প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে সচিবালয়ে আটকে রেখে এমন হুমকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। সোমবার (১৭ মে) এমন কথা জানান তার ছোট বোন সাবিনা ইয়াসমিন জুলি।

সোমবার (১৭ মে) রাতে বোনের সঙ্গে দেখা করে রাজধানীর শাহবাগ থানায় তিনি সাংবাদিকদের সাবিনা ইয়াসমিন জুলি এসব কথা বলেন।

সাবিনা ইয়াসমিন জুলি বলেন, রোজিনা ইসলাম আমার বড় বোন। আমি প্রথম জানতাম না, কী হয়েছে। পরে থানায় এসে আপার সঙ্গে কথা বলে সব শুনেছি। বোন আজকে টিকা নিয়েছে সে খুব অসুস্থ। এখন দেখলাম তার গায়ে অনেক জ্বর। টিকা নেয়ার পর সচিবালয়ে যায়। সেখানে তার সঙ্গে সোর্সের দেখা করতে। দেখা হওয়ার পর সোর্স আমার বোনকে কিছু ডকুমেন্ট দেয়।

তিনি বলেন, ডকুমেন্ট পাওয়ার পর তখন তিনি স্বাস্থ্য সচিবের রুমে যাওয়ার জন্য বাইরে অপেক্ষমাণ কনস্টেবল মিজানকে জিজ্ঞেস করে ভিতরে কেউ আছে কি না। তখন মিজান বোনকে বলে ভেতরে কেউ নেই, আপনি ভেতরে গিয়ে বসেন। তখন আমার বোন বলে আমি ভেতর যাব না, আমি তথ্য নিতে এসেছিলাম। তারপর মিজান বলে, আপনি রুমের ভেতর বসেন। স্যার এখনি চলে আসবেন। এই কথা বলে মিজান আমার বোনকে রুমের ভেতরে বাসায়।

রোজিনা ইসলামের ছোট বোন বলেন, কক্ষে বসে আপা একটি পত্রিকা পড়ছিলেন। তখন কনস্টেবল মিজানসহ আরও কয়েকজন আপার ব্যাগ কেড়ে নেয়। তখন তারা বোনকে হুমকি দিয়ে বলে এতদিন অনেক নিউজ ও লেখালেখি করেছেন আপনাকে মাটির মধ্যে পুঁতে ফেলব। পরে বোনকে ৬ থেকে ৭ ঘণ্টা সচিবালয়ে আটকে রাখা হয়।

তিনি বলেন, আমার বোন পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য সচিবালয়ে গিয়েছিল। কিন্তু তাকে অনেক হয়রানি করা হয়েছে। কনস্টেবল মিজানসহ ছয়-সাত জন আপাকে ঘিরে রাখে। মিজান তাকে মারতে গিয়েছিল। পরে তারা আমার আপার কাছ থেকে মোবাইল ফোন কেড়ে নেয়। পরে তারা বোনের ব্যাগের মধ্যে কিছু কাগজ ঢুকিয়ে দিয়ে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার করছে।

সাবিনা ইয়াসমিন জুলি বলেন, স্বাস্থ্য খাতের কিছু অনিয়ম নিয়ে প্রতিবেদন করার পর থেকে বোনকে বিভিন্নভাবে হুমকি দেয়া হচ্ছিল। তবে এখন বোনের শারীরিক অবস্থা ভালো না। আমার বোনের চিকিৎসার প্রয়োজন। তাকে যদি এখন চিকিৎসা দেয়া না হয় তাহলে তার শরীরটা আরও খারাপ হয়ে যাবে।

বিষয় : গণমাধ্যম

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh