যুক্তরাষ্ট্রে সংক্রমণের নতুন হটস্পট ৫ রাজ্য

যুক্তরাষ্ট্রে নতুন করে করোনাভাইরাস সংক্রমণের প্রায় অর্ধেকই ঘটছে দেশটির পাঁচ রাজ্যে। সর্বোচ্চ সংখ্যক রোগী শনাক্ত হওয়া রাজ্য পাঁচটি হলো নিউ ইয়র্ক, মিশিগান, ফ্লোরিডা, পেনসিলভ্যানিয়া ও নিউ জার্সি। 

মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটির ডাটা উদ্ধৃত করে এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম এপি। 

গত এক সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রে চার লাখ ৫২ হাজারেরও বেশি মানুষের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে শুধু এই পাঁচ রাজ্যেই এক লাখ ৯৭ হাজারেরও বেশি মানুষের শরীরে এ ভাইরাস ধরা পড়েছে। অর্থাৎ, গত এক সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে যত মানুষের করোনা শনাক্ত হয়েছে তার ৪৪ শতাংশই হয়েছে এই পাঁচ রাজ্যে।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আগামী ১৯ এপ্রিলের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সব প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিকের জন্য ভ্যাকসিন সরবরাহ নিশ্চিতের ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। মঙ্গলবার ওয়াশিংটনের অদূরে ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের শহরতলী এলাকায় একটি টিকাদান কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে হোয়াইট হাউসে ফিরে এই ঘোষণা দেন তিনি।

জো বাইডেন জানান, ১৯ এপ্রিলের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের প্রত্যেক প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিক টিকা পাওয়ার জন্য উপযুক্ত হিসেবে বিবেচিত হবেন।

এর আগে এই সময়সীমা ছিল ১ মে। তবে মঙ্গলবার বাইডেন এটি আরো দুই সপ্তাহ এগিয়ে আনার ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, ‘আর কোনও বিভ্রান্তিকর নিয়ম নয়। আর কোনও বিভ্রান্তিকর বিধিনিষেধ নয়। ১৯ এপ্রিলের মধ্যে ১৮ বছর কিংবা তদুর্ধ্ব বয়সের সবাই ভ্যাকসিন পাওয়ার উপযুক্ত হিসেবে বিবেচিত হবেন।

গত সপ্তাহেই বাইডেন জানিয়েছিলেন, যুক্তরাষ্ট্রে প্রাপ্তবয়স্কদের ৯০ শতাংশই ১৯ এপ্রিলের মধ্যে টিকা পাওয়ার উপযোগী হিসেবে বিবেচিত হবেন। তবে মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসে শতভাগ প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিকদের জন্য এটি উন্মুক্ত করে দেওয়ার কথা জানান তিনি।

জরিপে অবশ্য দেখা গেছে যে, ২০ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ নানা কারণে ভ্যাকসিন নিতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছেন। কেউ কেউ বলছেন এটা অপ্রয়োজনীয়। কেউ বলছেন এটি ক্ষতিকর হতে পারে। আবার কেউ সরকার পরিচালিত এই কর্মসূচির ওপর আস্থা রাখতে পারছেন না।

যারা টিকা নিয়েছেন তাদের অধিকাংশই উল্লেখযোগ্য রকমের কোনও প্রতিক্রিয়ার কথা জানাননি। অনেকে আবার দুই একদিনের জন্য খুব সাময়িক প্রতিক্রিয়ার কথা জানিয়েছেন। তবে ভ্যাকসিন বিরোধীরা বহুদিন ধরেই টিকা নেওয়ার বিরোধিতা করে আসছেন।

২০২১ সালের ২০ জানুয়ারি মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথগ্রহণ করেন জো বাইডেন। দায়িত্ব গ্রহণের আগেই ভ্যাকসিন নেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রে ভ্যাকসিনেশন কর্মসূচির প্রথম দিকে শুধু বয়স্ক লোকজন এবং ফ্রন্টলাইন স্বাস্থ্যকর্মীদের টিকা দেওয়া হতো। তবে সরকারের নতুন সিদ্ধান্তের ফলে সেই সীমাবদ্ধতা আর থাকছে না। বরং প্রাপ্তবয়স্ক প্রত্যেক নাগরিকের ভ্যাকসিন নেওয়ার সুযোগ তৈরি হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh