কোনো মায়ের বুক খালি হলে দায় সেতুমন্ত্রীর: মির্জা

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চাপরাশিরহাট বাজারে নিজ কর্মীদের ওপর হামলার ঘটনায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করীম চৌধুরী ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান মো. শাহাবুদ্দিনসহ স্থানীয় প্রশাসনকে দায়ী করেছেন বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।

এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, ‘আমার কর্মীদের ওপর গুলি চালানো হয়েছে। আজ যদি কোনো মায়ের বুক খালি হয়, তাহলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করীম চৌধুরী ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান শাহাবুদ্দিনসহ স্থানীয় প্রশাসনকে দায়ী থাকতে হবে।’

শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৫টার দিকে চাপরাশিরহাট বাজারে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এক সংবাদকর্মীসহ চারজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন আহতের খবর পাওয়া গেছে।

মির্জা কাদের দাবি করেন, ‘তথাকথিত এমপি একরামুল চৌধুরীর সন্ত্রাসী বাহিনী আমার চাপরাশিরহাটে চরফকিরার মানুষের ওপর গুলি চালিয়েছে, পুলিশের সহযোগিতায়। ইতোমধ্যে প্রায় ৫০ জনের মতো আহত হয়েছে। অনেকেই মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।’

স্থানীয় প্রশাসনের প্রতি অভিযোগ তুলে তিনি বলেন, ‘আজ নোয়াখালীর ডিসি, এসপিদের সহযোগিতায় একরাম চৌধুরী তার বাড়িতে মিটিং করে এখানে (কোম্পানীগঞ্জ) গুন্ডা, সন্ত্রাসী ও অস্ত্রধারীদের পাঠিয়েছে। আমি আছি, প্রয়োজনে মৃত্যুবরণ করব। তবু আমি এখান থেকে যাবো না।’

মির্জা কাদের বলেন, ‘ওবায়দুল কাদের সাহেব আপনাকে জবাব দিতে হবে, আমার এলাকার একটা লোকের যদি মৃত্যু হয়। শাহাবুদ্দিন সাহেব ও প্রশাসনকে জবাব দিতে হবে। এলাকায় অস্ত্রের ঝনঝনানি হচ্ছে। এটা আমি কোনো অবস্থায় বরদাশত করব না। আমাকে কোনো অবস্থায় স্তব্ধ করা যাবে না, যতক্ষণ পর্যন্ত আমার নিঃশ্বাস আছে।’

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh