মোদিবিরোধী সমাবেশে ‘ছাত্রলীগের হামলা’, আহত অর্ধশতাধিক

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশে আগমনের প্রতিবাদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রগতিশীল ছাত্র জোটের পূর্বঘোষিত কর্মসূচিতে হামলার অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) টিএসসি সংলগ্ন ডাসে মোদির প্রতীকী কুশপুত্তলিকা দাহ করার সময় হামলা চালায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন ছাত্র ইউনিয়নের সাময়িক বহিষ্কৃত যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মেঘমল্লার বসু ও ছাত্রফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন প্রিন্স।

ছবি: স্টার মেইল

প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানান, ছাত্র জোটের নেতাকর্মীরা টিএসসি থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে শাহবাগ ঘুরে আবার টিএসসির পাশে ডাসে আসলে সেখানে হামলা চালায় ছাত্রলীগ। প্রথম হামলায় জোটের নেতাকর্মীদের কাছ থেকে কুশপুতুল কেড়ে নিলে তার মোদির ছবিতে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরে ফের হামলা চালায় ছাত্রলীগ। উভয়পক্ষ থেকে হেলমেট, ইট, ডাব ছোড়াছুড়ি চলে প্রায় ২০ মিনিট। এতে প্রগতিশীল ছাত্রজোটের নেতাকর্মী, সাংবাদিক ও পথচারীসহ অর্ধশতাধিক আহতের খবর পাওয়া যায়।

এর আগে দুপুরে মোদির আগমনের প্রতিবাদে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের বিক্ষোভ মিছিল ও কুশপুত্তলিকা দাহ কর্মসূচিতে বাধা দেয় ছাত্রলীগ। দাহ করার আগেই মোদির কুশপুত্তলিকা কেড়ে নেয় তারা।

ছবি: স্টার মেইল

বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি গোলাম মোস্তফা বলেন, সাম্প্রদায়িক নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশে আগমনের প্রতিবাদে আমাদের পূর্বঘোষিত কর্মসূচি ছিল। বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের পক্ষ থেকে আমরা একটি কুশপুতুল পোড়ানোর কর্মসূচি দেই। সে লক্ষ্যে আমরা একটি কুশপুতুল তৈরি করে টিএসসি গেটে রাখি। তখন রাজু ভাস্কর্য থেকে ছাত্রলীগের ৩০-৪০ জন নেতাকর্মী এসে কুশপুত্তলিকা নিয়ে মোটরসাইকেলে করে পালিয়ে যায়। এর মাধ্যমে ছাত্রলীগ ভারতের নরেন্দ্র মোদির করা সকল অপকর্মের সমর্থন দিয়েছে।

ছবি: স্টার মেইল

ছাত্রফ্রন্ট ঢাবি শাখার সভাপতি সালমান সিদ্দিকী বলেন, হামলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র ইউনিয়ন নেতা মেঘমাল্লার বসু, ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক রাশেদ শাহরিয়ার, ঢাবি শাখার সাধারণ সম্পাদক প্রগতি বর্মন তমা, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের সভাপতি নাসির উদ্দীন প্রিন্সসহ জোটের ২০-২৫ জন নেতাকর্মী আহত হয়। তাদের অনেকেই বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে।

প্রগতিশীল ছাত্রজোটের সমন্বয়ক এবং সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট আল কাদেরী জয় বলেন, আমাদের শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ সমাবেশে সরকারের সন্ত্রাসী সংগঠন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা হামলা চালিয়ে আমাদের ২০ থেকে ২৫ জন নেতাকর্মীকে মারাত্মক আহত করেছে।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh