জন্মদিন নিয়ে কাদেরের বক্তব্য শিষ্টাচার বহির্ভূত : ফখরুল

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ফাইল ছবি

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ফাইল ছবি

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জন্মদিন সম্পর্কে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের মন্তব্য অরাজনৈতিক ও শিষ্টাচার বহির্ভূত বলে দেশটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমি তার এ বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি ও অবিলম্বে তা প্রত্যাহার করার আহ্বান করছি। 

আজ সোমবার (১৬আগস্ট) দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে খালেদা জিয়ার জন্মদিন উপলক্ষে তার সুস্থতা ও দীর্ঘায়ু কামনায় বিএনপি আয়োজিত দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, আজকে এই সরকারের জনগণের সাথে কোনো সম্পর্ক নেই, যেহেতু কোনো জবাবদিহিতা নেই, সেজন্য যা ইচ্ছা তাই করছে। এই দেশে সত্যিকার অর্থে একটা কর্তৃত্ববাদী, স্বৈরাচারী, ফ্যাসিবাদী সরকার প্রতিষ্ঠা করেছে।

সরকার করোনা মহামারি সঠিকভাবে মোকাবিলা করতে ব্যর্থ হয়েছে- উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, টিকা সংগ্রহ করতে গিয়ে দুর্নীতি করেছে। গণটিকা দেয়ার নামে অব্যবস্থপনার তৈরি করেছে। ফলে সারা দেশে করোনা সংক্রমণ আরো বেড়েছে। অপরিকল্পিত লকডাউনের নামে বিরোধীদলের বিরুদ্ধে ক্রাকডাউন করছে। তারা বিরোধীদলকে কোনো সভা-সমাবেশ করতে দিচ্ছে না। অথচ তারা নিজেরা ঠিকই করছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, এই সরকার ইতিহাস বিকৃত করার জন্য এবং জনগণের দৃষ্টি ভিন্ন দিকে প্রবাহিত করতে জিয়াউর রহমানের বিরুদ্ধে অত্যন্ত অপমানজনক কথাবার্তা বলছে। এসব কথাবার্তা বলার উদ্দেশ্য হলো ইতিহাসকে বিকৃত করা এবং জনগণকে বিভ্রান্ত করা।

তিনি বলেন, আমরা খুব ভালো করে জানি ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ডের পরে কারা ক্ষমতায় এসেছিল। ক্ষমতায় এসেছিল আওয়ামী লীগ। তাদের নেতা খন্দকার মোশতাক সেদিন ক্ষমতাসীন হয়েছিলেন। আওয়ামী লীগের নেতাদের নিয়েই সেদিন নতুন মন্ত্রিসভা গঠন করা হয়েছিল, শেখ মুজিবুর রহমানের রক্তের ওপর দিয়ে, সে কথা আমরা ভুলে যাইনি। আমরা বিশ্বাস করি এসব মিথ্যা প্রচারণা করে তারা জনগণকে বিভ্রান্ত করতে পারবে না। সত্য বের হয়ে আসবে।

দলীয় নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব আরো বলেন, আসুন আজকে আমাদের ওপরে যে দায়িত্ব পড়েছে, সকল গণতান্ত্রিক শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ করে দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে, গণতন্ত্রকে মুক্ত করতে হবে। 

মিলাদ মাহফিলে আরো উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমান, দক্ষিণের আহ্বায়ক আব্দুস সালাম, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব, যুগ্ম-মহাসচিব খায়রূল কবির খোকন, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী অ্যানি, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সুপু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, সহ-প্রচার সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীম, ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সদস্য সচিব আমিনুল হক, দক্ষিণের সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু, যুবদল সভাপতি সাইফুল আলম নীরব এবং স্বেচ্ছাসেবক দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //