সবার আগে আ.লীগের বিচার করার ঘোষণা

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ফাইল ছবি

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ফাইল ছবি

সবার আগে আওয়ামী লীগের বিচার করার ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, ‘দেশে বিকৃত অবস্থা বিরাজ করছে। এজন্য আওয়ামী লীগের সবার আগে বিচার হবে। তারা বিকলাঙ্গ রাষ্ট্র হিসেবে বাংলাদেশকে প্রতিষ্ঠিত করেছে, সংবিধান শেষ করে দিয়েছে। সংসদ, বিচার ব্যবস্থা, প্রশাসনকে দলীয়করণ করেছে, গণমাধ্যম নিয়ন্ত্রণ করছে—এটা তাদের চরিত্র, পুরনো অভ্যাস।’

শুক্রবার (২৯ অক্টোবর) সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপি নেতা অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার প্রণীত ‘জাতিসত্ত্বার অন্তরালে বিষাক্ত নিঃশ্বাস’ গ্রন্থের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন বিএনপির মহাসচিব।

জাতিসত্ত্বা নিয়ে বিতর্ক অনেকদিন ধরে চলছে মন্তব্য করে ফখরুল বলেন, ‘বাঙালি জাতি কথাটা বলায় অনেকে বাদ পড়ে যায়, যারা বাঙালি না তারা বাদ পড়ে যান। শহীদ জিয়াউর রহমান প্রথম বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদী মতাদর্শ নিয়ে আসেন।’

এ সময় বাকশাল নিয়ে প্রশ্ন তুলেন বিএনপির মহাসচিব। তিনি বলেন, ‘বাকশালের কথা জিজ্ঞেস করলেই আওয়ামী লীগের নেতারা এড়িয়ে যান, জিজ্ঞেস করলেই এড়িয়ে যান। মুখে গণতন্ত্রের কথা বলে তো, এড়িয়ে যান। বাকশাল করা হয়েছিল, কেন। কারণ কেউ বলতে পারবে না, কেউ লিখতে পারবে না। শুধু তারাই বলবেন। একনেতা এক দেশ, শেখ মুজিবের বাংলাদেশ- এটাই ছিল তখনকার স্লোগান। এখন কী, একনেতা এক দেশ, শেখ হাসিনার বাংলাদেশ; তফাতটা তো নাই। নেই, খালি মোড়কটা আলাদা। এই যে আমরা মোড়ক উন্মোচন করলাম—এমন। গণতন্ত্রের নামে ভেতরে কিন্তু একদলীয় শাসনব্যবস্থা-বাকশাল।’

ফখরুল জানান, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা ও উন্নতির দিকে। তিনি গতকাল তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করে এসেছেন। দ্রুতই যেন বেগম জিয়া মুক্ত হয়ে ফিরতে পারেন। এজন্য সবার কাছে দোয়া কামনা করেছেন বিএনপির মহাসচিব।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে দলের যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, তৈমুর আলম খন্দকারসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //