সরকার জাতিকে বিভক্ত করে ফেলেছে: মির্জা ফখরুল

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দলীয়করণ করতে গিয়ে সরকার জাতিকে বিভক্ত করে ফেলেছে।

আজ শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটিতে আয়োজিত প্রয়াত গীতিকার গাজী মাজহারুল আনোয়ারের স্মরণসভায় এ কথা বলেন তিনি। 

মির্জা ফখরুল বলেন, স্কুল-মসজিদ কমিটি থেকে শুরু করে সব জায়গায় বিভক্তি। এই সরকার জাতিকে পিছিয়ে দিচ্ছে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ অভিযোগ করলে আদালতে বিচার পাওয়া যায়, আর বিএনপি করলে পাওয়া যায় না। আওয়ামী লীগ বাংলাদেশের রাজনৈতিক কাঠামো ভেঙে ফেলেছে, কারণ দেশের জনগণ ভোট দিতে পারে না।

তিনি আরো বলেন, আপনি বিচারালয়ে যান, বিচার পাবেন না। আপনি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারীর কাছে যাবেন নিরাপত্তার জন্য, সেখানে নিরাপত্তা পাবেন না। আগে বলবে, তুমি বিএনপি কর না আওয়ামী লীগ কর? যদি বিএনপি কর কোনো কিছু হবে না, উপরন্তু আপনার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে দেবে। ঢাকা দক্ষিণ ছাত্রদলের তিন জন ছেলে- তারা রাতে বাসায় যাচ্ছিল, ওই সময়ে তাদেরকে আক্রমণ করে আহত করা হয়েছে। মামলা দিতে গেছে, ওদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। 

মির্জা ফখরুল বলেন, সরকার গোটা জাতিকে গত ১২/১৫ বছরে বিভক্ত করে ফেলেছে। এমন একটা জায়গা পাবেন না যেখানে আপনি দেখবেন যে, বিভক্তি নেই। সবখানে এই আওয়ামী লীগ আর বাকি সব বিরোধী, এই একটা ভাগ করে ফেলেছে। 

মসজিদের কমিটি- সেখানে ভাগ, স্কুলের কমিটি- সেখানেও ভাগ, মাদরাসার কমিটি সেখানেও ভাগ, গানের স্কুলে সেখানেও ভাগ, বিশ্ববিদ্যালয়েও সেখানে ভাগ, কলেজেও ভাগ- সবখানে ভাগ। এই যে বিভক্তি কোনো জাতিকে কখনো সামনের দিকে নিয়ে যাবে না। জাতিকে সামনের দিয়ে নিয়ে যায় ঐক্যের মধ্য দিয়ে, যেটা প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান সাহেব করেছিলেন। ১৯৭৫ সালে এসে তিনি সেই বিভক্তি দূর করে গোটা জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করে সামনের দিকে নিয়ে গিয়েছিলেন। 

তিনি বলেন, রাজনৈতিক অঙ্গনটাই কেমন যেন নষ্ট হয়ে গেছে। একদম কলুষিত হয়ে গেছে। কোথায় ভালো জিনিস আছে বলেন? আজকে এটা তো সত্য কথা যে, বাংলাদেশের রাজনৈতিক কাঠামোটা- এটা ভেঙে পড়েছে, ভঙ্গুর। 

তিনি আরো বলেন, একটা নির্বাচনের মাধ্যমে যে একটা পার্লামেন্ট গঠন হবে, সরকার গঠন হবে, সেই নির্বাচনে জনগণই অংশ নিতে পারে না। তাহলে এটা কিসের নির্বাচন? ওই জায়গাটা তারা ধ্বংস করে ফেলেছে। তাহলে বুঝেন এই যে একটা অবস্থা, এই যে একটা পরিবেশ, এই যে একটা সমাজ, এই যে একটা রাষ্ট্র তারা তৈরি করছে, এখান থেকে মুক্তি হবে কী করে? এটাই এখন বড় প্রশ্ন। 

তিনি বলেন, এখান থেকে আমাদের দেশকে রক্ষা করতে হবে। এটা কি একা বিএনপির দায়িত্ব? সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। এটা যে নষ্ট হচ্ছে, এটা বাংলাদেশের স্বাধীনতার যে স্বপ্ন সেটা নষ্ট হচ্ছে। নষ্ট হচ্ছে আমাদের সামনে এগিয়ে যাওয়ার জন্যে যে পথ সেটা। এর জন্য দায়ী সম্পূর্ণ আজকের শাসকগোষ্ঠী আওয়ামী লীগ।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //