৪ ফেব্রুয়ারি বিভাগীয় সমাবেশ ডেকেছে বিএনপি

এবার আগামী ৪ ফেব্রুয়ারি দেশের সব বিভাগীয় শহরে বিভাগীয় সমাবেশের ডাক দিয়েছে বিএনপি। দলটি সরকারের দমন-পীড়নের প্রতিবাদে, কর্মীদের মুক্তি, গ্যাস ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম কমানোসহ পূর্বঘোষিত ১০ দফা দাবি বাস্তবায়নে এ সমাবেশের ডাক দিয়েছে।

আজ বুধবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুরে নয়াপল্টনে আয়োজিত সমাবেশে এই নয়া কর্মসূচির ঘোষণা করেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

উল্লেখ্য, ১৯৭৫ সালের ২৫ জানুয়ারি গণতন্ত্র হত্যা দিবস স্মরণ ও গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে ১০ দফা দাবি আদায়ে ঢাকা মহানগর বিএনপি আজকের এই সমাবেশের আয়োজন করে।

সমাবেশে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘১৯৭২ থেকে ৭৫ পর্যন্ত কী এমন ঘটল যে বাকশাল গঠন করতে হলো। ১৯৭৪-৭৫ সালের কথা ভুলে যান কেন। সব পত্রিকা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। একদলীয় সরকার ব্যবস্থা বাকশাল গঠন করা হলো। এরপর তথাকথিত বুদ্ধিজীবী তার সঙ্গে যোগ দিয়েছিল।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী। অথচ তাকেই সন্ত্রাস করে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। আওয়ামী লীগ প্রথম থেকেই একটা সন্ত্রাসী দল। তাদের সন্ত্রাসী কার্যক্রমে আমাদের এই অফিসের সামনেই নিহত হলেন আমাদের কর্মী মকবুল।’

তিনি আরো বলেন, ‘যারা আমাদের ভাইদের হত্যা করেছে, তাদের অবশ্যই এর ঋণ শোধ করতে হবে। আমাদের রিকশাওয়ালা ভাইরা আজ চাল-আটা কিনতে পারে না। আজ বিদ্যুতের দাম বাড়ছে, গ্যাসের দাম বাড়ছে। তারা বলেন সব নাকি রাশিয়ার যুদ্ধের কারণে। আর এই যে হাজার হাজার কোটি টাকা লুট করলেন, কানাডায় বাড়ি করলেন। এই আওয়ামী লীগ মনে করে এই দেশ তাদের পৈত্রিক সম্পদ, এই মানুষ তাদের প্রজা।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আজ এই সরকার পরিকল্পিতভাবে আমাদের অধিকারগুলো কেড়ে নিয়েছে। ছদ্মবেশী বাকশাল তৈরি করেছে, নির্বাচনের নাটক তৈরি করেছে। কিন্তু এদেশের মানুষ তাদের ভোটের অধিকার ফেরত চায়।’

আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি রাষ্ট্রপতি নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমরা আমাদের ২৭ দফার মধ্যে পরিষ্কার করে বলেছি যে দেশের প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির ক্ষমতার মধ্যে ভারসাম্য আনতে হবে। আমরা বলেছি, দ্বি-কক্ষবিশিষ্ট সংসদ গঠন করতে হবে। আমাদের প্রথম দফা সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘এরা এমনি এমনি যায় না। আন্দোলন করেই এদের সরাতে হবে। আমরা নিশ্চয়ই জনগণকে-দেশকে মুক্ত করব। যতক্ষণ পর্যন্ত আওয়ামী লীগ সরছে না, যতক্ষণ আমাদের সঙ্গীদের কারাগার থেকে মুক্ত করতে না পারছি, ততক্ষণ আন্দোলন চলবে।’

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2023 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //