ICT Division

সম্পর্কের বাঁধন মজবুত করার উপায়

সঙ্গীর কাছ থেকে ভালোবাসা ও সম্মান কে না চায়? ভালোবাসা ও সম্মান সম্পর্কের ভীত মজবুত করে। সঙ্গীর সাথে মনের মিল এবং মজবুত সম্পর্ক পেতে পালন করুন কিছু বাস্তবধর্মী কৌশল।

প্রত্যেকেই এমন সম্পর্ক চায়, যেখানে তারা উভয়ই সুখী থাকবে, একে অপরের খেয়াল রাখবে এবং সম্পর্কে বিশ্বাস, আস্থা, প্রত্যাশার প্রতিফলন, ইতিবাচক মনোভাব ও সম্মান থাকবে। কিন্তু অধিকাংশ সময়ই আমরা সন্দিহান থাকি যে এমন মজবুত সম্পর্ক গড়ে তোলার উপায় কী?

সাধারণত আমরা আমাদের চারপাশের সম্পর্কগুলো দেখে শেখার চেষ্টা করি। তাদের চাওয়া পাওয়া গুলো কী কী, তাদের সমস্যাগুলো কী কী বা কীভাবে তারা সেগুলো সমাধান করছে সেগুলো অনুকরণ করি। আর অনুকরণ করে নিজের সম্পর্কে সেগুলোর প্রতিফলন ঘটানোর এই চেষ্টা অধিকাংশ সময়েই ব্যর্থ হয়।

এর কারণ হলো, পৃথিবীতে প্রতিটি মানুষ এবং তাদের ব্যক্তিত্ব আলাদা। তাই অন্তরঙ্গ সম্পর্কে একে অপরের প্রতি মনোভাব, প্রত্যাশা,  সমস্যা, বা সমস্যার সমাধান সবকিছুই হয় ভিন্ন ভিন্ন। একজনকে দেখে অপরজনকে বিচার করতে গেলে কখনোই সফলভাবে সমাধান খুঁজে পাওয়া সম্ভব হয় না।

তবে অন্যদের জীবন থেকে অবশ্যই শিক্ষা গ্রহণ করা যেতে পারে। আর এই শিক্ষা নিজের জীবনে ও সম্পর্কে সঠিকভাবে প্রয়োগ করলেই একটি দীর্ঘস্থায়ী, সুন্দর সম্পর্ক অর্থাৎ মজবুত সম্পর্ক গড়ে তোলা যায়। নিচে কিছু কৌশল তুলে ধরা হল যেগুলো অনুসরণ করে আপনি নিজের মনের মতো সম্পর্ক গড়ে তুলতে পারবেন-

সঙ্গীর প্রতি সমর্থন

সম্পর্কে দুজনারই একে অপরের প্রতি সম্পূর্ণ সমর্থন থাকা প্রয়োজন। একে অপরকে সবসময়, সব পরিস্থিতিতে সমর্থন করাটা গুরুত্বপূর্ণ।

মনস্তাত্ত্বিক বোঝাপড়া

একে অপরের মন বুঝে চলা উচিত। মনস্তাত্ত্বিক বোঝাপড়া দীর্ঘস্থায়ী সম্পর্কের মূল ভিত্তি।

শারীরিক সম্পর্ক

শারীরিক সম্পর্ক বলতে শুধু মাত্র যৌন সম্পর্ককেই বোঝায় না। যৌন সম্পর্ক অবশ্যই সুন্দর ও দীর্ঘস্থায়ী সম্পর্কের একটি অংশ কিন্তু একে অপরকে আলিঙ্গন করা, হাত ধরা, চোখে চোখ রাখা, চুমু খাওয়া ইত্যাদি বিষয় সম্পর্কে প্রাণ এনে দেয়।

সম্মান

যেকোনো ফলপ্রসূ সম্পর্কে সম্মান থাকা অত্যন্ত জরুরি। একে অপরের মনোভাব ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকুন।

প্রশংসা

প্রশংসা মন ভালো রাখার ও অনুপ্রেরণা প্রদানের একটি অন্যতম হাতিয়ার। তাই একে অপরের প্রশংসা করুন।

গঠনমূলক সমালোচনা

একে অপরের ভুল ভ্রান্তিকে গঠনমূলকভাবে সমালোচনা করুন। খেয়াল রাখবেন অপমান করলে ভালো কথাও অনেক সময় খারাপ ফল বয়ে আনে।

বাস্তবধর্মী প্রত্যাশা

একে অপরের কাছে বাস্তবধর্মী প্রত্যাশা করুন। এতে করে চাওয়া পাওয়ায় শূন্যতা সৃষ্টি হবে না।

ক্ষমাশীলতা

একে অপরের প্রতি ক্ষমাশীল মনোভাব রাখুন। এতে করে বিভিন্ন সময়ে সম্পর্কে আসা জটিলতা সহজে দূর হয়ে যাবে এবং সম্পর্ক দীর্ঘস্থায়ী হবে।

উপরের বিষয়গুলো খেয়াল রাখলে আশা করা যায় যে, সঙ্গীর সাথে আপনার সম্পর্ক মনের মত হবে এবং সেটি দীর্ঘস্থায়ী ও মজবুতও হবে।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //