সীমিত পরিসরে হজ আয়োজনের পরিকল্পনা সৌদি আরবের

বৈশ্বিক করোনাভাইরাস মহামারির কারণে এ বছর হজ পুরোপুরি বাতিল না করে অল্প কিছু হজযাত্রীকে অনুমতি দেয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে সৌদি আরব। 

বার্তা সংস্থা রয়টার্সে প্রকাশিত এক খবরে বলা হচ্ছে, সৌদি আরব প্রতি দেশ থেকে যত হজযাত্রী যাওয়ার কথা তা থেকে ২০ শতাংশ আসতে দেবে এমন সম্ভাবনা রয়েছে।

সাধারণ সময়ে ২৫ লাখের মতো মানুষ সারা বিশ্ব থেকে হজ পালন করতে সৌদি আরব যান। গত বছর প্রায় ২ কোটি হজযাত্রী ওমরাহ পালন করেন। হজ করেন প্রায় ২৬ লাখ।

আর হজ ও বছরব্যাপী ওমরাহ থেকে সৌদি সরকারের বার্ষিক আয় প্রায় ১ হাজার ২০০ কোটি ডলার।

সংশ্লিষ্ট দুটি সূত্রের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানায়, কর্তৃপক্ষ এবার কেবল ‘প্রতীকী সংখ্যায়’ মুসল্লিদের হজের অনুমতি দেয়ার বিবেচনা করছে। তবে বয়স্ক ব্যক্তিরা এ সুযোগ পাবেন না। সবাইকে বাড়তি স্বাস্থ্য পরীক্ষার মধ্য দিয়ে যেতে হবে।

সৌদি আরবে অনেক কর্মকর্তা এখনো এবারের হজ বাতিল করার ব্যাপারে চাপ দিচ্ছেন।

সৌদি আরবে ইতোমধ্যে দেশটিতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১ লাখ। একইসাথে সংক্রমণ বাড়ছে বিশ্বের বেশির ভাগ দেশেই। এই প্রকোপ বৃদ্ধির ফলে এ বছরের আসন্ন হজ অনুষ্ঠিত হবে কি না, তা নিয়ে সংশয় দেখা দেয়।

এদিকে বাংলাদেশের ধর্ম মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, তারা আনুষ্ঠানিকভাবে এখনো কিছু জানতে পারেনি।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধির সাথে সাথে ব্যাপক সুরক্ষা ব্যবস্থা নিয়েছে সৌদি আরব। মার্চের শুরুতে বিদেশি নাগরিকদের জন্য মক্কা ও মদিনায় ওমরাহ পালন ও ধর্মীয় সব কর্মকাণ্ড বন্ধের বিরল ঘোষণা দিয়েছিল দেশটি। এর কয়েকদিন পর সৌদি নাগরিক ও বাসিন্দাদের জন্যেও ওমরাহ হজ সাময়িক সময়ের জন্য স্থগিত করা হয়।

মসজিদে নামাজ পড়া এমনকি ঈদের জামাতের উপরেও বিধিনিষেধ ছিল। একই সময়ে সকল আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বাতিল করে দেশটি। সেখানে বিভিন্ন শহরে কারফিউ জারি ছিল। জেদ্দায় নতুন করে আবার কারফিউ জারি করা হয়েছে। -বিবিসি


মন্তব্য করুন

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh