দুই-তৃতীয়াংশ আসনে জিতব : মমতা

মমতা বলেন, দুই-তৃতীয়াংশ আসন নিয়ে নিয়ে তৃণমূল আবার ক্ষমতায় আসছে। ফাইল ছবি

মমতা বলেন, দুই-তৃতীয়াংশ আসন নিয়ে নিয়ে তৃণমূল আবার ক্ষমতায় আসছে। ফাইল ছবি

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার ২৯২টি আসনের ভোট গণনা শুরু হয়েছে আজ রবিবার সকাল ৮টা থেকে। দেখা যাচ্ছে, সময় যত বাড়ছে, ততই বিজেপির সাথে ব্যবধান বাড়াচ্ছে মমতা ব্যানার্জির তৃণমূল কংগ্রেস।

দুপুর ১টা পর্যন্ত ভারতের জাতীয় নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইটে পাওয়া ফলাফলে দেখা যাচ্ছে, তৃণমূল কংগ্রেস ২৮৪টি আসনের মধ্যে ২০২টি আসনে এগিয়ে রয়েছে আর বিজেপি পেতে চলেছে ৭৭টি আসন। স্বতন্ত্র দুইটি, ঝাড়খণ্ড স্টুডেন্টস ইউনিয়ন একটি, কংগ্রেস একটি আর রাষ্ট্রীয় সেকুলার মজলিস পার্টি একটি আসন পেলেও, ৩৪ বছরের শাসক দলের নামে একটিও আসন মেলেনি।

রাজ্যের ভোট গণনার ট্রেন্ড দেখে মমতা বলেছেন, রাজ্যে আবার দুই-তৃতীয়াংশ আসন নিয়ে নিয়ে তৃণমূল আবার ক্ষমতায় আসছে। নন্দীগ্রাম বিধানসভায় যে ফলের ট্রেন্ড দেখা যাচ্ছে সেটা বদলে যাবে। যত রাউন্ড বাড়বে দেখা যাবে তৃণমূলই সেখানে জয়ের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ যেভাবে রাজ্যে ডেইলি প্যাসেঞ্জারের মতো এসে সভা করেছেন, মমতাকে প্রধানমন্ত্রী “দিদি, ও দিদি”, বলে ডেকেছেন সেটা যে রাজ্যের মানুষ মেনে নেননি ভোটার ফল তাই প্রমাণ করছে। এছাড়াও তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে ধারাবাহিকভাবে প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সিন্ডিকেট, কাটমানি, তোলাবাজির যে অভিযোগ এনেছেন সেটাও রাজ্যের মানুষ যে মেনে নেয়নি এটাই এখন পর্যন্ত গণনার ট্রেন্ড বলছে।

ভোট গণনার ট্রেন্ড দেখেই জয় সম্পর্কে নিশ্চিত তৃণমূল। তবে দেশের করোনাভাইরাস যে ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে, তাতে এটা উচ্ছ্বাস দেখানোর সময় নয় বলে জানিয়ে দিলেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

তিনি বলেন, এই জয়ে কোনো বিজয় মিছিল হবে না। এটা আনন্দ করার সময় নয়। রাজ্যে কত মানুষ মারা যাচ্ছেন। আমার নিজের অনেক আত্মীয় মারা গিয়েছেন। এমনকি যারা আমাকে ভোট দিয়েছিলেন, তাদের অনেকেই নেই। এই অবস্থায় বিজয় মিছিল বা আনন্দ করার মতো মানসিক অবস্থা নেই আমার।

নীলবাড়ির লড়াইয়ে ফিরহাদ নিজে কলকাতা বন্দর থেকে প্রার্থী হয়েছেন। সেখানে দুপুর পর্যন্ত বিজেপির অওয়ধ কিশোর গুপ্তর সাথে তার প্রাপ্ত ভোটের ব্যবধান ১৭ হাজার। তবে জিতবেন বলে শুরু থেকেই আত্মবিশ্বাসী ছিলেন বলে জানিয়েছেন ফিরহাদ। 

তিনি বলেন, কোনো দুশ্চিন্তা নেই আমার। টেনশন লেনে কা নহি, দেনে কা হ্যায়। মানুষের জন্য কাজ করেছি। আমি নিজেকে ‘ফর দ্য পিপল, বাই দ্য পিপল, টু দ্য পিপল’ বলে মনে করি। মানুষ বিবেচনা করে মতামত দিয়েছেন।

তবে নিজের কেন্দ্রে ফিরহাদ প্রতিপক্ষের থেকে নিরাপদ ব্যবধান বজায় রাখতে সক্ষম হলেও, নন্দীগ্রাম ভাবাচ্ছে তৃণমূলকে। সেখানে শুভেন্দু অধিকারীর কাছে পিছিয়ে পড়েছেন মমতা। 

তবে ফিরহাদের বক্তব্য, ‘মমতা ব্যানার্জির দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই। আমরা কাজ করেছি। উত্তরপ্রদেশ, বিহারের মতো ধর্ম, বর্ণ, জাতির ভিত্তিতে ভোট হয় না বাংলায়। দুই-তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ফিরছে তৃণমূল। তৃতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী হচ্ছেন মমতা।’ -কলকাতা২৪/৭ ও আনন্দবাজার পত্রিকা

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh