আফগানিস্তান ছাড়লো যুক্তরাষ্ট্র, কাবুল বিমানবন্দরের নিয়ন্ত্রণে তালেবান

কাবুল বিমানবন্দরে মার্কিন বিমানবাহিনীর উড়োজাহাজ। ছবি : আল জাজিরা

কাবুল বিমানবন্দরে মার্কিন বিমানবাহিনীর উড়োজাহাজ। ছবি : আল জাজিরা

যুক্তরাষ্ট্রের সেনারা গতকাল সোমবার (৩০ আগস্ট) মধ্যরাতে আফগানিস্তানের মাটি ছেড়েছে। আর কিছুক্ষণের মধ্যেই কাবুল বিমানবন্দরে ঢুকে পড়ে তালেবান।

রাত ১২টার এক মিনিট আগে শেষ মার্কিন বিমান সব সেনাকে নিয়ে আফগানিস্তান ছেড়ে উড়ে যায়। এর মাধ্যমে শেষ হলো ২০ বছরের যুদ্ধ। তালেবান মুখপাত্র জানিয়েছেন, কাবুল বিমানবন্দর এখন তাদের হাতে। এতদিনে আফগানিস্তান সম্পূর্ণভাবে স্বাধীন হলো।

মার্কিন সেনার সেন্ট্রাল কম্যান্ড কম্যান্ডার জেনারেল ফ্রাঙ্ক ম্যাকেঞ্জি এর কিছুক্ষণের মধ্যেই একটি বিবৃতি দেন। এতে বলা হয়, শেষ মার্কিন বিমান আফগানিস্তানের মাটি ছেড়েছে। এর মাধ্যমে আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক মিশন শেষ হলো। মার্কিন নাগরিকদের দেশে ফেরানোর যে প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল, তারও সমাপ্তি ঘটল। 

তিনি আরো জানিয়েছেন, মার্কিন ও যৌথবাহিনীর সেনা সব মিলিয়ে গত দুই সপ্তাহে অন্তত এক লাখ ২০ হাজার মানুষকে উদ্ধার করে আফগানিস্তান থেকে অন্য দেশে পাঠিয়েছে। তবে সবাইকে উদ্ধার করা যায়নি বলেও স্পষ্ট করে দিয়েছেন তিনি।

ম্যাকেঞ্জির বিবৃতির কিছুক্ষণের মধ্যেই মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন আরো একটি বিবৃতি প্রকাশ করেন। এতে বলা হয়, দুইশর কম কিন্তু একশর বেশি মার্কিন নাগরিককে আফগানিস্তান থেকে উদ্ধার করা যায়নি। তারা আফগানিস্তান ছাড়তে চেয়েছিলেন। কিন্তু কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে মার্কিন সেনা তাদের উদ্ধার করতে পারেনি।

এদিকে শেষ মার্কিন বিমান কাবুল বিমানবন্দর ছাড়তেই সেখানে ঢুকে পড়ে তালেবান যোদ্ধারা। শুরু হয় উৎসব। গোটা কাবুল জুড়েই আকাশে গুলি ছোড়ার শব্দ শোনা যায়। কাবুল বিমানবন্দরের ভিতরেও তারা শূন্যে গুলি চালিয়ে উৎসব করে। 

তালেবান মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ বলেন, মার্কিন সেনা কাবুল বিমানবন্দর ছেড়েছে। আমাদের দেশ এতদিনে সম্পূর্ণ স্বাধীনতা পেল।

ক্ষমতায় আসার কিছুদিনের মধ্যেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন জানিয়েছিলেন, ৩১ আগস্টের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তান থেকে সব সেনা সরিয়ে নেবে। বস্তুত এর আগে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট যোনাল্ড ট্রাম্প আরো আগেই আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা সরিয়ে নেয়ার কথা বলেছিলেন।

এরই মধ্যে ধীরে ধীরে গোটা আফগানিস্তানের দখল নেয় তালেবান। কাবুল বিমানবন্দর কেবল মার্কিন সেনার হাতে ছিল। গত দুইদিন কাবুল বিমানবন্দরেও নানা ঘটনা ঘটেছে। আইএসের ঘটানো বিস্ফোরণে একাধিক মার্কিন সেনার মৃত্যু হয়েছে। ড্রোনের সাহায্যে গাড়িবোমা ধ্বংস করেছে মার্কিন সেনা। যার জেরে সাধারণ মানুষ ও শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার ভোরে কাবুল বিমানবন্দর লক্ষ্য করে একাধিক রকেট ছুড়েছে আইএস জঙ্গিরা। তার মধ্যেই শেষ বিমানে সব মার্কিন সেনা নিয়ে আফগানিস্তান ছাড়ে যুক্তরাষ্ট্র। -ডয়চে ভেলে

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //