কেরালা হাইকোর্টের ঐতিহাসিক রায়

বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে শারীরিক সম্পর্ক ধর্ষণ নয়

বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসের অভিযোগকে আর ধর্ষণ বলা যাবে না। শুক্রবার (৮ জুলাই) একটি মামলায় এমনই রায় দিয়েছে ভারতের কেরালা হাইকোর্ট।

দুজন প্রাপ্তবয়স্ক সঙ্গী যৌন সম্পর্ক স্থাপন করতেই পারেন। কিন্তু পরে কোনোভাবে বিষয়টিকে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৬ ধারায় ধর্ষণের মামলায় ফেলা যায় না। অর্থাৎ বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসের অভিযোগকে ধর্ষণ হিসেবে উপস্থাপনের যে প্রচলন আছে, সেটি এখন থেকে আর বলা যাবে না।

এই রায়ের মাধ্যমে ভারতে যৌনতা আর সহবাসের সংজ্ঞা যেন নিমেষে বদলে গেল বলে মনে করা হচ্ছে। কেরালা হাই কোর্টের বিচারপতি বেচু কুরিয়ান টমাস এর একটি রায়ে ভারতে সব কিছুতে বদল আসার উপক্রম। টমাস কুরিয়ান এক আইনজীবীর এক মহিলার সঙ্গে চার বছরের সম্পর্ক সংক্রান্ত একটি মামলার রায় দিতে গিয়ে সম্মতিতে সহবাস কে ধর্ষণ তুল্য অপরাধ বলে মান্যতা দিতে রাজি হননি। তিনি রায়ে স্পষ্ট করে বলেন কোনও তরুণী যখন বিয়ের প্রতিশ্রুতি পেয়ে যৌনতায় লিপ্ত হয় তখন সে সম্মতিক্রমেই সহবাস করে। পরে নানা কারণে বিয়ে না হলেই তা ধর্ষণ বলে গণ্য করা যায়না।

বিচারপতি কুরিয়ান বলেছেন, ধর্ষণ সেটাই যেখানে একজনের অনিচ্ছা সত্ত্বেও যৌন সম্পর্ক স্থাপন করা হচ্ছে। তিনি অবশ্য একটি রিলিফ দিয়েছেন। 

রায়ে তিনি বলেছেন যে যদি অসৎ উদ্দেশ্যে কেউ বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে নারী অথবা নর কে সংগমে প্রাণিত করে সেটি ধর্ষণ বলে বিবেচিত হতে পারে। এই সূক্ষ্ম বিচারটা আইনকেই করতে হবে বলে তিনি জানান।     

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

বিষয় : ভারত

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //