বাংলাদেশের প্রথম আন্তর্জাতিক মোটর রেসার অভিক

১১ বছর বয়সেই গাড়ি চালানো শিখেছেন অভিক। ‘টিভিতে নিয়মিত রেসিং দেখতেন। ফরমুলা ওয়ান ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপে মাইকেল শুমাখার ও মিকা হ্যানিকেনের প্রতিদ্বন্দ্বিতা দেখে রেসিংয়ের প্রতি তৈরি হয় ভালোবাসা।’ এভাবেই ২০০৭ সালে রেসিংয়ের হাতেখড়ি অভিকের। তারপরই প্রশিক্ষণ নেওয়া শুরু করেন। আর সেটা বেশ ব্যয়বহুল। টাকা জোগাড়ের জন্য তীব্র ঠান্ডায় পিৎজা ডেলিভারির কাজও করেছেন এ রেসার।

২০১৪ সালে ঢাকার আগারগাঁওয়ে র‌্যালি ক্রস চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নিয়ে প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন হন। এরপর ২০১৫, ২০১৬-তেও চ্যাম্পিয়ন হন অভিক। তখন অভিকের মনে হয়, এবার বাইরে যাওয়া যাক। ভারত থেকে পরীক্ষা দিয়ে রেসার লাইসেন্স নেন। ২০১৭ সালে ভারতে প্রথম রেসে অংশ নেন অভিক। সেটা ছিল ইন্টারন্যাশনাল মোটর স্পোর্টসের আয়োজন। প্রথম রেসেই চতুর্থ হন। পরের দুই বছরে কোনো রেসিংয়েই তিনের মধ্যে পৌঁছাতে পারেননি অভিক। ২০১৯ সালে আবার এল সাফল্য।

কদিন আগেই ভারত থেকে জয় নিয়ে ফিরেছেন অভিক। এটা ছিল ভারতের জাতীয় ট্যুরিং কার চ্যাম্পিয়নশিপ-ভক্সওয়াগন পোলো কাপ। গত বছরের সেপ্টেম্বরে শুরু হয়ে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে এসে শেষ হলো এই প্রতিযোগিতা। চ্যাম্পিয়নশিপে চতুর্থ হয়েছেন অভিক আনোয়ার। সাফল্য আরও আছে। এটির রাউন্ড ২, রেস ২ ও রাউন্ড ৩, রেস ২-এ দ্বিতীয় এবং রাউন্ড ৪, রেস ২-এ প্রথম হয়েছেন অভিক। শুধু তাই নয়, এই প্রতিযোগিতায় তার ছাত্র ইশায়েত হোসেনও অংশ নিয়েছেন। জুনিয়র (নবাগত) শাখায় ইশায়েত হয়েছেন চ্যাম্পিয়ন। আরও দুই বাংলাদেশি প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিলেন।

বাংলাদেশ মোটর স্পোর্টস সংগঠনের হয়ে এখন বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশ নেন অভিক আনোয়ার। বন্ধু রাশিদ আলিকে সঙ্গে নিয়ে এটি গড়েছেন তিনি। এই নামেই থাকে অভিকের দল। এই দলে অভিক ড্রাইভার, রাশিদ আলি ব্যবস্থাপক, প্রশিক্ষিত ছয়জন টেকনিশিয়ান আর গাড়ি দুটি।

গতি, রোমাঞ্চ, তুমুল প্রতিযোগিতা এসব মিলেই মোটর রেস। সর্বোচ্চ ‘ঘণ্টায় ৩০০ কিলোমিটার গতিতে গাড়ি চালিয়েছেন অভিক। 

অভিক জানান, এটা ছিল গত বছর জার্মানির অটোব্যান প্রতিযোগিতায়।

ফরমুলা ওয়ান ট্র্যাকার রেসেও অংশ নিয়েছেন এই বাংলাদেশি তরুণ, সংযুক্ত আরব আমিরাতে। ফরমুলা কারের অনুশীলনে একবার দুর্ঘটনাতেও পড়েন। হাতের হাড় ভেঙে যায়। গাড়ির রিভিউয়ার হিসেবেও অভিক আনোয়ার এখন বেশ জনপ্রিয়। ২০১১ সাল থেকে একটি টিভি চ্যানেলে গাড়ি নিয়ে আলোচনা করেন। অভিক এখন বাংলাদেশ পুলিশের সঙ্গে সড়ক নিরাপত্তা নিয়ে কাজ করছেন। পাশাপাশি রেসিংয়ের প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন অনেক তরুণকে। গতি আর রোমাঞ্চের খেলা মোটর রেসের বিশ্ব মানচিত্রে বাংলাদেশের নাম বারবার আসুক, এটাই তাঁর চাওয়া।

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //